Home > ক্যারিয়ার > অগ্রগতির জন্য পেশাগত উন্নয়ন
ক্যারিয়ার

অগ্রগতির জন্য পেশাগত উন্নয়ন

 

 

আশিস আচার্য

জীবনে সার্বিক অগ্রগতির জন্য পেশাগত উন্নয়ন একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। এই প্রক্রিয়ায় মধ্য দিয়ে কেউ কর্মক্ষেত্রের উপযুক্ত একজন সদস্য হিসেবে গড়ে ওঠেন। প্রক্রিয়াটি সারা জীবন ধরেই চলতে থাকে। মানুষ কীভাবে জীবিকা বা খাওয়া-পরার সংস্থান করে, সে ব্যাপারে প্রথম যখন কেউ ভাবতে শেখে, পেশাগত উন্নয়নের ব্যাপারটা তখনই শুরু হয়ে যায়। যেমন যখন কোনো শিশু খেয়াল করে যে কিছু মানুষ চিকিৎসক, অন্যরা দমকল বাহিনীর কর্মী, আবার কেউ বা ছুতার হিসেবে কাজ করছেন; তখনই শিশুটি মনে মনে ঠিক করে নেয়, বড় হয়ে সে-ও এ রকম কিছু একটা হবে। কোনো একটা পেশায় সে নিজেকে কল্পনা করতে শেখে। ব্যাপারটা সেখানেই শেষ হয়ে যায় না। পেশাজীবী হওয়ার জন্য শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ নিতে হয়। তারপর একটা চাকরির জন্য আবেদন করে লক্ষ্যের দিকে এগোতে হয়। এক চাকরি ছেড়ে আরেকটায় যাওয়ার অভিজ্ঞতাও পেশাগত উন্নয়নে ভূমিকা রাখে।
প্রায় সব মানুষের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের বিরতি ছাড়াই পেশাগত উন্নয়নের ব্যাপারটি ঘটতে থাকে। কেউ ধরাবাঁধা চাকরির প্রতি আকৃষ্ট হন। আবার কেউ স্বাধীন পেশায় যেতে চান। তবে অর্থ উপার্জনের ব্যবস্থা অবশ্যই থাকা চাই।
কয়েকটি প্রভাবক
পেশাগত উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি প্রভাবক রয়েছে। এগুলো পরস্পর সম্পর্কিত:
ব্যক্তিগত বৈশিষ্ট্য: ব্যক্তিত্বের ধরন, আগ্রহ ও কাজ-সম্পর্কিত মূল্যবোধ প্রভৃতি একজন মানুষের পেশাগত উন্নয়নে প্রভাব ফেলে। কোনো পেশা বেছে নেওয়ার আগে অবশ্যই এসব বৈশিষ্ট্যের কথা মাথায় রাখতে হবে। নিবিড়ভাবে নিজেকে মূল্যায়নের মাধ্যমে নিজের স্বভাব বা বৈশিষ্ট্যগুলো জেনে নেওয়া যায়। এতে উপযুক্ত পেশা বা চাকরি খুঁজে নেওয়াটা সহজ হয়।
আর্থসামাজিক প্রভাব: অর্থনৈতিক অবস্থার কারণে কেউ হয়তো ঠিকমতো পড়াশোনা করতে পারে না; অথবা অসময়ে অপছন্দের পেশায় যোগ দিতে বাধ্য হয়। তবে আশার কথা হলো, আর্থিক অনটনের মতো সমস্যাগুলো কাটিয়ে ওঠার কিছু উপায়ও রয়েছে। যেমন শিক্ষাঋণ, অর্থনৈতিক সহায়তা বা বৃত্তির সুবিধা।
শারীরিক ও মানসিক সামর্থ্য: শারীরিক ও মানসিক গঠনের ভিত্তিতে কেউ কেউ নির্দিষ্ট কোনো পেশার উপযুক্ত বিবেচিত হন। আবার কেউ বাদ পড়েন। নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী সম্ভাব্য পেশা অনুসন্ধান করার ব্যাপারটা গুরুত্বপূর্ণ।
আকস্মিক সুযোগ: জীবনে এমন অনেক ঘটনার মুখোমুখি হতে হয়, যেগুলো আমাদের নিয়ন্ত্রণের সম্পূর্ণ বাইরে। এসব ঘটনা অনেক সময় জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। সেই অনুযায়ীই বেছে নিতে হয় নির্দিষ্ট কোনো পেশা। আর সেই পথ ধরেই এগিয়ে যেতে হয়।