Home > প্রবাস > বন্যার্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবিলে অনুদান দেবে বাগডিসি
প্রবাস

বন্যার্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবিলে অনুদান দেবে বাগডিসি

 

এ্যান্থনী পিউস গমেজ, যুক্তরাষ্ট্র থেকেঃ গত ১০ই সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছে বাগডিসি (বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি) আয়োজিত বাংলাদেশের ভয়াবহ বন্যা কবলিত মানুষদের জন্য তহবিল সংগ্রহের উদ্দেশ্যে একটি বিশেষ ফান্ড রেইজিং অনুষ্ঠান।

সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীরের এ্যনান্ডেল,ভার্জিনিয়াস্থ বাসভাবনে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার সামাজিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ বেশ কিছু সহৃদয় মানুষ উপস্থিত থেকে বাংলাদেশের বন্যার্তদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে এগিয়ে এসেছেন দুর্গতদের প্রতি ভালবাসা ও সহানুভূতি নিয়ে। অনুষ্ঠানের শুরুতেই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এ্যন্থনী পিউস গমেজ আয়োজনে যোগ দেয়ার জন্য সবাইকে স্বাগতম ও শুভেচ্ছা জানান এবং সংক্ষিপ্ত পরিসরে আয়োজনের মূল উদ্দেশ্যের উপর আলোকপাত করেন। এছাড়া তিনি সবাইকে যার যার আত্মীয়পরিজন এবং বন্ধু-বান্ধবদেরও বন্যার্তদের সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসতে অনুপ্রানিত করার জন্য অনুরোধ করেন।

অতঃপর সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর সবাইকে এই মহতী উদ্যোগে সাড়া দিয়ে এগিয়ে আসার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান এবং বাগডিসি থেকে এমনি মানবকল্যানকর কর্মপ্রয়াস হাতে নিতে পেরে আনন্দিত ও গর্বিত বলে উল্লেখ করেন। তিনি আরও জানান যে- ‘ভবিষ্যতেও বাগডিসি’র পক্ষ থেকে আমাদের সমাজের মানুষের জন্য বাগডিসি’র সেবামূলক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে এবং এমনিভাবেই সবার সহযোগিতা আমরা কামনা করছি বাগডিসির এই পথচলায়’। এর পর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন বাগডিসি’র সাবেক প্রেসিডেন্ট, বর্তমান কার্যকরী পরিষদের সদস্য, ডক্টর খন্দকার মনসুর। তিনি বাগডিসি’র এই মহতী উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং আয়োজনের সফলতা কামনা করে তিনি দেশের মানুষের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতার কথা মনে করিয়ে দিয়ে বলেন- “বন্যা বা যে কোন দূর্যোগে দেশের মানুষের পাশে এসে দাঁড়ানো আমাদের সামাজিক দায়িত্ব ও কর্তব্য, কারণ আমাদের দেশের জনগনের জন্যই আমরা আজ আমাদের বর্তমান অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছি”। তিনি বাগডিসি’র আহবানে সাড়া দিয়ে সবাইকে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করেন। ওয়াশিংটনে সবার পরিচিত, সমাজ হিতৈষী এবং পৃষ্ঠপোষক মজহারুল হক তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বাগডিসি’র উদ্যোগকে অভিনন্দন জানিয়ে উল্লেখ করেন যে, ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকায় তিনি যখন এসেছিলে সুদীর্ঘ ছয় দশকেরও বেশী সময় আগে(১৯৫৬), তখন তিনি ছিলেন অত্র এলাকায় একা বাঙ্গালী এবং সে তুলনায় এখন এখানে হাজার হাজার বাংলাদেশীদের বসবাস লক্ষনীয় ।

তাই সমাজের জন্য, দেশের জন্য ভাল কিছু করার সুযোগ এখন তুলনামূলকভাবে অনেক বেশী। সমাজসেবা বা মানবকল্যানকর কাজে এগিয়ে আসার জন্য তিনি সবার প্রতি আহবান জানান। অতঃপর অনুষ্ঠানটির বাকী অংশ সঞ্চালনা করেন বাগডিসি’র সাংস্কৃতিক সম্পাদক শম্পা বণিক। তিনি সবাইকে অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এই মানবকল্যান ডাকে সাড়া দেয়ার জন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্বে যারা সঙ্গীত পরিবেশন করবেন, তাদের পরিচয় করিয়ে দেন এবং শুরু হয় মূল সঙ্গীত পর্ব।

যেসব শিল্পীরা অনুষ্ঠান অত্যন্ত চমৎকার সঙ্গীত পরিবেশন করে সবার হৃদয় ছুঁয়ে যান, তারা হলেন- ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার সবার পরিচিত এবং জনপ্রিয় রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী কুমকুম বাগচী, মেট্রো এলাকার আধুনিক গানের জনপ্রিয় শিল্পী বিপ্লব দত্ত এবং সবার পরিচিত এবং প্রিয় ফয়সল কাদের। এছাড়াও যারা অতিথি শিল্পী হিসেবে গান পরিবেশন করেন, তারা হলেন-মোহাম্মদ আলমগীর, অসীম রানা, জুয়েল বড়ুয়া, পুলি কর্মকার এবং সান্তনু বড়ুয়া। শব্দ নিয়ন্ত্রনে ছিলেন সান্তনু বড়ুয়া, একর্ডিয়ান এবং কী-বোর্ডে আবু রুমী এবং তবলায় রোমান। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে এসে বাগডিসি’র পক্ষ থেকে সমাজকর্মী ও পৃষ্ঠপোষক, ডঃ ফায়জুল ইসলাম সংগৃহীত অনুদানের কথা ঘোষণা করে বলেন যে, সর্বমোট ১০,০০০ ডলার (দশ হাজার) সংগৃহীত হয়েছে এবং এই সংগৃহীত ত্রান তহবিল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ওয়াশিংটন ভ্রমনকালে তার হাতে তুলে দেয়া হবে। তিনি সবাইকে এমনিভাবে মানবতার সেবার এগিয়ে আসার জন্য সবার প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অন্যান্যদের সহ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডঃ খন্দকার মনসুর, ডঃ ফায়জুল ইসলাম, জনাব রজত আলী, রোকসানা পারভীন , পারভীন পাটোয়ারী , নুরুল আমিন নুরু , নাইম রহমান, আবু রুমি, মোহাম্মদ মোস্তফা , কবির পাটোয়ারী , জাকির হোসেন, রেদোয়ান চৌধুরী, সামসুন নাহার, জি আই রাসেল, শেখ সেলিম , প্রিয়লাল কর্মকার , জীবক বড়ুয়া, দেওয়ান আরশাদ আলী বিজয় সহ আরও অনেকে। সঙ্গীত পর্ব শেষে সবাইকে নৈশভোজ পরিবেশন করা হয়।

উল্লেখ্য যে, অনুষ্ঠানে সবার সহযোগিতায় এবং সহৃদয় দানে বন্যা দূর্গতদের সাহায্যার্থে প্রায় ১০ হাজার ডলার সংগৃহীত হয়, যা মাননীয়া প্রধানমন্ত্রীর ওয়াশিংটন ভ্রমনকালে তার হাতে তুলে দেয়া হবে। পরিশেষে বাগডিসি’র পক্ষ থেকে সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বাংলাদেশের বন্যা কবলিত মানুষদের সাহায্যার্থে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানা হয়।