Home > ইসলাম > সূরা > সূরা নং- ০১১ : হুদ
সূরা

সূরা নং- ০১১ : হুদ

 

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ

আরবি উচ্চারণ
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

বাংলা অনুবাদ
পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামে (শুরু করছি)।

الر كِتَابٌ أُحْكِمَتْ آيَاتُهُ ثُمَّ فُصِّلَتْ مِنْ لَدُنْ حَكِيمٍ خَبِيرٍ11.1

আরবি উচ্চারণ
১১.১। আলিফ্ লা – ম্ র-কিতাবুন্ উহ্কিমাত্ আ-ইয়া-তুহূ ছুম্মা ফুছ্ছিলাত্ মিল্লাদুন্ হাকীমিন্ খর্বী।

বাংলা অনুবাদ
১১.১ আলিফ-লাম-রা। এটি কিতাব যার আয়াতসমূহ সুস্থিত করা হয়েছে, অতঃপর বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করা হয়েছে প্রজ্ঞাময়, সবিশেষ অবহিত সত্ত্বার পক্ষ থেকে।

أَلَّا تَعْبُدُوا إِلَّا اللَّهَ إِنَّنِي لَكُمْ مِنْهُ نَذِيرٌ وَبَشِيرٌ11.2

আরবি উচ্চারণ
১১.২। আল্লা-তা’বুদূ য় ইল্লাল্লা-হ্; ইন্নানী লাকুম্ মিন্হু নাযীরুঁও অবার্শী।

বাংলা অনুবাদ
১১.২ (এ মর্মে) যে, তোমরা আল্লাহ ছাড়া কারো ইবাদাত করো না। নিশ্চয় আমি তোমাদের জন্য তাঁর পক্ষ থেকে সতর্ককারী ও সুসংবাদদাতা।

وَأَنِ اسْتَغْفِرُوا رَبَّكُمْ ثُمَّ تُوبُوا إِلَيْهِ يُمَتِّعْكُمْ مَتَاعًا حَسَنًا إِلَى أَجَلٍ مُسَمًّى وَيُؤْتِ كُلَّ ذِي فَضْلٍ فَضْلَهُ وَإِنْ تَوَلَّوْا فَإِنِّي أَخَافُ عَلَيْكُمْ عَذَابَ يَوْمٍ كَبِيرٍ11.3

আরবি উচ্চারণ
১১.৩। অআনিস্ তাগ্ফিরূ রব্বাকুম্ ছুম্মা তূবূ য় ইলাইহি ইয়ুমাত্তি’কুম্ মাতা-‘আন্ হাসানান্ ইলা য় আজ্বালিম্ মুসাম্মাঁও অইয়ুতি কুল্লা যী ফাদ্ব্লিন্ ফাদ্ব্লাহ্; অইন্ তাওয়াল্লাও ফাইন্নী য় আখা-ফু ‘আলাইকুম্ ‘আযা-বা ইয়াওমিন্ কার্বী।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩ আর তোমরা তোমাদের রবের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা কর। তারপর তার কাছে ফিরে যাও, (তাহলে) তিনি তোমাদেরকে নির্ধারিত সময় পর্যন্ত উত্তম ভোগ-উপকরণ দেবেন এবং অধিক আনুগত্যশীলকে তাঁর আনুগত্য মুতাবিক দান করবেন। আর যদি তারা ফিরে যায়, তবে আমি নিশ্চয় তোমাদের উপর বড় এক দিনের আযাবের ভয় করছি।

إِلَى اللَّهِ مَرْجِعُكُمْ وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ 11.4

আরবি উচ্চারণ
১১.৪। ইলাল্লা-হি র্মাজ্বিউ’কুম্ অহুঅ ‘আলা- কুল্লি শাইয়িন্ ক্বর্দী।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪ আল্লাহর নিকটই তোমাদের প্রত্যাবর্তন এবং তিনি সব কিছুর উপর ক্ষমতাশীল।

أَلَا إِنَّهُمْ يَثْنُونَ صُدُورَهُمْ لِيَسْتَخْفُوا مِنْهُ أَلَا حِينَ يَسْتَغْشُونَ ثِيَابَهُمْ يَعْلَمُ مَا يُسِرُّونَ وَمَا يُعْلِنُونَ إِنَّهُ عَلِيمٌ بِذَاتِ الصُّدُورِ11.5

আরবি উচ্চারণ
১১.৫। আলা য় ইন্নাহুম্ ইয়াছ্নূনা ছুদূরহুম্ লিইয়াস্তাখ্ফূ মিন্হু; আলা-হীনা ইয়াস্তাগ্শূনা ছিয়া-বাহুম্ ইয়া’লামু মা-ইয়ুর্সিরূনা অমা-ইউ’লিনূনা, ইন্নাহূ ‘আলীমুম্ বিযা-তিছ্ ছুর্দূ।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫ জেনে রাখ, নিশ্চয় তারা তাদের বুক ফিরিয়ে নেয়, যাতে তারা তার থেকে আত্মগোপন করতে পারে। জেনে রাখ, যখন তারা কাপড় আবৃত হয়, তখন তিনি জানেন যা তারা গোপন করে এবং যা তারা প্রকাশ করে। নিশ্চয় তিনি অন্তর্যামী।

وَمَا مِنْ دَابَّةٍ فِي الْأَرْضِ إِلَّا عَلَى اللَّهِ رِزْقُهَا وَيَعْلَمُ مُسْتَقَرَّهَا وَمُسْتَوْدَعَهَا كُلٌّ فِي كِتَابٍ مُبِينٍ11.6

আরবি উচ্চারণ
১১.৬। অমা-মিন্ দা – ব্বাতিন্ ফিল্ র্আদ্বি ইল্লা-‘আলাল্লা-হি রিযকুহা- অইয়া’লামু মুস্তার্ক্বারহা- অমুস্তাওদা‘আহা-; কুল্লুন্ ফী কিতাবিম্ মুবীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬ আর যমীনে বিচরণকারী প্রতিটি প্রাণীর রিয্কের দায়িত্ব আল্লাহরই এবং তিনি জানেন তাদের আবাসস্থল ও সমাধিস্থল । সব কিছু আছে স্পষ্ট কিতাবে ।

وَهُوَ الَّذِي خَلَقَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ فِي سِتَّةِ أَيَّامٍ وَكَانَ عَرْشُهُ عَلَى الْمَاءِ لِيَبْلُوَكُمْ أَيُّكُمْ أَحْسَنُ عَمَلًا وَلَئِنْ قُلْتَ إِنَّكُمْ مَبْعُوثُونَ مِنْ بَعْدِ الْمَوْتِ لَيَقُولَنَّ الَّذِينَ كَفَرُوا لَيَقُولَنَّ الَّذِينَ كَفَرُوا إِنْ هَذَا إِلَّا سِحْرٌ مُبِينٌ11.7

আরবি উচ্চারণ
১১.৭। অহুওয়াল্লাযী খালাক্বস্ সামা-ওয়া-তি অল্র্আদ্বোয়া ফী সিত্তাতি আইয়্যা-মিওঁ অ কা-না ‘র্আশুহূ ‘আলাল্ মা – য়ি লিইয়াব্লুঅকুম্ আইয়্যুকুম্ আহসানু ‘আমালা-; অ লায়িন্ কুল্তা ইন্নাকুম্ মাব্‘ঊছূনা মিম্ বা’দিল মাওতি লাইয়াকুলান্নাল্লাযীনা কাফারূ য় ইন্ হা-যা য় ইল্লা-সিহ্রুম্ মুবীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭ আর তিনিই আসমানসমূহ ও যমীন সৃষ্টি করেছেন ছয় দিনে, সে সময় তাঁর আরশ ছিল পানির উপর, যাতে তিনি পরীক্ষা করেন যে, কে তোমাদের মধ্যে আমলে সর্বোত্তম। আর তুমি যদি বল, ‘মৃত্যুর পর নিশ্চয় তোমাদেরকে পুনরুজ্জীবিত করা হবে’, তবে কাফিররা অবশ্যই বলবে, ‘এতো শুধুই স্পষ্ট যাদু’।

وَلَئِنْ أَخَّرْنَا عَنْهُمُ الْعَذَابَ إِلَى أُمَّةٍ مَعْدُودَةٍ لَيَقُولُنَّ مَا يَحْبِسُهُ أَلَا يَوْمَ يَأْتِيهِمْ لَيْسَ مَصْرُوفًا عَنْهُمْ وَحَاقَ بِهِمْ مَا كَانُوا بِهِ يَسْتَهْزِئُونَ11.8

আরবি উচ্চারণ
১১.৮। অলায়িন্ আর্খ্খানা-‘আন্হুমুল্ ‘আযা-বা ইলা য় উম্মাতিম্ মা’দূদাতিল্ লাইয়াকুলুন্না মা-ইয়াহ্বিসুহ্; আলা-ইয়াওমা ইয়াতীহিম্ লাইসা মাছ্রূফান্ ‘আন্হুম্ অহা-ক্বা বিহীম্ মা-কানূ বিহী ইয়স্তাহ্যিয়ূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮ আর যদি আমি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত তাদের থেকে আযাব বিলম্বিত করি, তবে তারা অবশ্যই বলবে, ‘কোন্ বস্তু তাকে ঠেকিয়ে রাখল’? সাবধান ! যেদিন তাদের উপর তা নেমে আসবে, সেদিন তাদের থেকে তা ফেরানো হবে না এবং তারা যা নিয়ে উপহাস করত, তাদেরকে তা ঘিরে ফেলবে।

وَلَئِنْ أَذَقْنَا الْإِنْسَانَ مِنَّا رَحْمَةً ثُمَّ نَزَعْنَاهَا مِنْهُ إِنَّهُ لَيَئُوسٌ كَفُورٌ11.9

আরবি উচ্চারণ
১১.৯। অলায়িন্ আযাক্বনাল্ ইন্সা-না মিন্না-রহ্মাতান্ ছুম্মা নাযা’না-হা মিন্হু, ইন্নাহূ লাইয়ায়ূসুন্ কার্ফূ।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯ আর যদি আমি মানুষকে আমার পক্ষ থেকে রহমত আস্বাদন করাই, অতঃপর তার থেকে তা কেড়ে নেই, তাহলে সে নিশ্চয় নিরাশ, অকৃতজ্ঞ হয়ে পড়বে।

وَلَئِنْ أَذَقْنَاهُ نَعْمَاءَ بَعْدَ ضَرَّاءَ مَسَّتْهُ لَيَقُولَنَّ ذَهَبَ السَّيِّئَاتُ عَنِّي إِنَّهُ لَفَرِحٌ فَخُورٌ 11.10

আরবি উচ্চারণ
১১.১০। অলায়িন্ আযাক্ব্না-হু না’মা – য়া বা’দা দ্বোর্য়ারা – য়া মাস্সাত্হু লাইয়াকু লান্না যাহাবাস্ সাইয়্যিয়া-তু ‘আন্নী; ইন্নাহূ লাফারিহুন্ ফাখূর।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০ আর দুঃখ-দুর্দশা স্পর্শ করার পর যদি আমি তাকে নিআমত আস্বাদন করাই, তাহলে সে অবশ্যই বলবে, ‘আমার থেকে বিপদ-আপদ দূর হয়ে গেছে, আর সে হবে অতি উৎফুল্ল, অহঙ্কারী।

إِلَّا الَّذِينَ صَبَرُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ أُولَئِكَ لَهُمْ مَغْفِرَةٌ وَأَجْرٌ كَبِيرٌ11.11

আরবি উচ্চারণ
১১.১১। ইল্লাল্লাযীনা ছোয়াবারূ অ‘আমিলুছ্ ছোয়া-লিহা-ত্; উলা-য়িকা লাহুম্ মাগ্ফিরাতুঁও অআজ্বুরুন্ কার্বী।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১ তবে যারা সবর করেছে এবং সৎকর্ম করেছে, তাদের জন্যই রয়েছে ক্ষমা ও মহা প্রতিদান।

فَلَعَلَّكَ تَارِكٌ بَعْضَ مَا يُوحَى إِلَيْكَ وَضَائِقٌ بِهِ صَدْرُكَ أَنْ يَقُولُوا لَوْلَا أُنْزِلَ عَلَيْهِ كَنْزٌ أَوْ جَاءَ مَعَهُ مَلَكٌ إِنَّمَا أَنْتَ نَذِيرٌ وَاللَّهُ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ وَكِيلٌ11.12

আরবি উচ্চারণ
১১.১২। ফালা‘আল্লাকা তা-রিকুম্ বা’দ্বোয়া মা-ইয়ূহা য় ইলাইকা অদ্বোয়া – য়িকুম্ বিহী ছোয়াদ্রুকা আইঁ ইয়াকু লূ লাওলা য় উন্যিলা ‘আলাইহি কান্যুন্ আও জ্বা – য়া মা‘আহূ মালাক্ব; ইন্নামা য় আন্তা নার্যী; অল্লা-হু ‘আলা-কুল্লি শাইয়িঁও অকীল্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১২ তাহলে সম্ভবত তুমি তোমার উপর অবতীর্ণ ওহীর কিছু বিষয় ছেড়ে দেবে এবং তোমার বুক সঙ্কুচিত হবে এ কারণে যে, তারা বলে, ‘কেন তার উপর ধন-ভাণ্ডার অবতীর্ণ হয়নি, কিংবা তার সাথে ফেরেশতা আসেনি’? তুমি তো শুধু সতর্ককারী এবং আল্লাহ সর্ব বিষয়ে তত্ত্বাবধায়ক।

أَمْ يَقُولُونَ افْتَرَاهُ قُلْ فَأْتُوا بِعَشْرِ سُوَرٍ مِثْلِهِ مُفْتَرَيَاتٍ وَادْعُوا مَنِ اسْتَطَعْتُمْ مِنْ دُونِ اللَّهِ إِنْ كُنْتُمْ صَادِقِينَ11.13

আরবি উচ্চারণ
১১.১৩। আম্ ইয়াকুলূনাফ্ তারা-হ্; কুল্ ফাতূ বি‘আশ্রি সুঅরিম্ মিছ্লিহী মুফ্তারাইয়া-তিঁও অদ্ঊ’ মানিস্ তাত্বোয়া’তুম্ মিন্ দূনিল্লা-হি ইন্ কুন্তুম্ ছোয়া-দিক্বীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৩ নাকি তারা বলে, ‘সে এটা মনগড়াভাবে করেছে’? বল, ‘তাহলে তোমরা এর অনুরূপ দশটি সূরা বানিয়ে নিয়ে আস এবং আল্লাহ ছাড়া যাকে পার ডেকে আন, যদি তোমরা সত্যবাদী হও’।

sفَإِنْ لَمْ يَسْتَجِيبُوا لَكُمْ فَاعْلَمُوا أَنَّمَا أُنْزِلَ بِعِلْمِ اللَّهِ وَأَنْ لَا إِلَهَ إِلَّا هُوَا هُوَ فَهَلْ أَنْتُمْ مُسْلِمُونَ11.14

আরবি উচ্চারণ
১১.১৪। ফাইল্লাম্ ইয়াস্তাজ্বীবূ লাকুম্ ফা’লামূ য় আন্নামা য় উন্যিলা বি‘ইল্মিল্লা-হি অআল্লা য় ইলা-হা ইল্লা- হুঅ, ফাহাল্ আন্তুম্ মুস্লিমূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৪ অতঃপর তারা যদি তোমাদের আহ্বানে সাড়া না দেয়, তাহলে জেনে রাখ, এটা আল্লাহর জ্ঞান অনুসারেই নাযিল করা হয়েছে এবং তিনি ছাড়া কোন (সত্য) ইলাহ্ নেই। তাহলে তোমরা কি অনুগত হবে?

مَنْ كَانَ يُرِيدُ الْحَيَاةَ الدُّنْيَا وَزِينَتَهَا نُوَفِّ إِلَيْهِمْ أَعْمَالَهُمْ فِيهَا وَهُمْ فِيهَا لَا يُبْخَسُونَ11.15

আরবি উচ্চারণ
১১.১৫। মান্ কা-না ইয়ুরীদুল্ হাইয়া-তাদ্ দুন্ইয়া- অযীনাতাহা- নুওয়াফ্ফি ইলাইহিম্ আ’মা-লাহুম্ ফীহা-অহুম্ ফীহা-লা-ইয়ুব্খাসূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৫ যে ব্যক্তি দুনিয়ার জীবন ও তার জৌলুস কামনা করে, আমি সেখানে তাদেরকে তাদের আমলের ফল পুরোপুরি দিয়ে দেই এবং সেখানে তাদেরকে কম দেয়া হবে না।

أُولَئِكَ الَّذِينَ لَيْسَ لَهُمْ فِي الْآخِرَةِ إِلَّا النَّارُ وَحَبِطَ مَا صَنَعُوا فِيهَا وَبَاطِلٌ مَا كَانُوا يَعْمَلُونَ11.16

আরবি উচ্চারণ
১১.১৬। উলা – য়িকাল্লাযীনা লাইসা লাহুম্ ফিল্ আ-খিরাতি ইল্লান্না-রু অহাবিত্বোয়া মা-ছনাঊ’ ফীহা- অবা-ত্বিলুম্ মা- কা-নূ ইয়া’মালূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৬ এরাই তারা, আখিরাতে যাদের জন্য আগুন ছাড়া আর কিছুই নেই এবং তারা সেখানে যা করে তা বরবাদ হয়ে যাবে আর তারা যা করত, তা সম্পূর্ণ বাতিল।

أَفَمَنْ كَانَ عَلَى بَيِّنَةٍ مِنْ رَبِّهِ وَيَتْلُوهُ شَاهِدٌ مِنْهُ وَمِنْ قَبْلِهِ كِتَابُ مُوسَى إِمَامًا وَرَحْمَةً أُولَئِكَ يُؤْمِنُونَ بِهِ وَمَنْ يَكْفُرْ بِهِ مِنَ الْأَحْزَابِ فَالنَّارُ مَوْعِدُهُ فَلَا تَكُ فِي مِرْيَةٍ مِنْهُ إِنَّهُ الْحَقُّ مِنْ رَبِّكَ وَلَكِنَّ أَكْثَرَ النَّاسِ لَا يُؤْمِنُونَ11.17

আরবি উচ্চারণ
১১.১৭। আফামান্ কা-না ‘আলা- বাইয়িনাতিম্ র্মি রব্বিহী অইয়াত্লূহু শা-হিদুম্ মিন্হু অমিন্ ক্বব্লিহী কিতা-বু মূসা য় ইমা-মাঁও অ রহ্মাহ্; উলা – য়িকা ইয়ুমিনূনা বিহ্;অমাইঁ ইয়ার্ক্ফু বিহী মিনাল্ আহ্যা-বি ফান্না-রু মাও‘ইদুহূ, ফালাতাকু ফী র্মিইয়াতিম্ মিন্হু ইন্নাহুল্ হাক্বকু র্মি রব্বিকা অলাকিন্না আক্ছারান্না-সি লা-ইয়ুমিনূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৭ যারা তার রবের পক্ষ থেকে স্পষ্ট প্রমাণের উপর প্রতিষ্ঠিত এবং অনুসরণ করে তাঁর পক্ষ থেকে একজন সাক্ষী এবং যার পূর্বে রয়েছে মূসার কিতাব পথপ্রদর্শক ও রহমতস্বরূপ, (তারা কি ঐ লোকদের মত, যারা দুনিয়া ও তার জৌলুস কামনায় বিভোর?) এরাই তার প্রতি ঈমান পোষণ করে। আর যে সকল দল তা অস্বীকার করে, আগুনই হবে তাদের প্রতিশ্র“ত আবাস। সুতরাং তুমি এতে মোটেও সন্দেহের মধ্যে থেকো না, নিশ্চয় তা তোমার রবের পক্ষ থেকে প্রেরিত সত্য। কিন্তু অধিকাংশ মানুষ ঈমান আনে না।

وَمَنْ أَظْلَمُ مِمَّنِ افْتَرَى عَلَى اللَّهِ كَذِبًا أُولَئِكَ يُعْرَضُونَ عَلَى رَبِّهِمْ وَيَقُولُ الْأَشْهَادُ هَؤُلَاءِ الَّذِينَ كَذَبُوا عَلَى رَبِّهِمْ أَلَا لَعْنَةُ اللَّهِ عَلَى الظَّالِمِينَ11.18

আরবি উচ্চারণ
১১.১৮। অমান্ আজ্লামু মিম্মানিফ্ তারা-‘আলাল্লা-হি কাযিবা-; উলা – য়িকা ইয়ু’রাদ্বুনা ‘আলা-রব্বিহিম্ অইয়াকুলুল্ আশ্হা-দু হা য় য়ুলা – ই ল্লাযীনা কাযাবূ ‘আলা- রব্বিহিম্, আলা- লা’নাতুল্লা-হি ‘আলাজ্জোয়া-লিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৮ যারা আল্লাহর ব্যাপারে মিথ্যা রটনা করে, তাদের চেয়ে অধিক যালিম কে? তাদেরকে তাদের রবের সামনে উপস্থিত করা হবে এবং সাক্ষীগণ বলবে, ‘এরাই তাদের রবের ব্যাপারে মিথ্যারোপ করেছিল’। সাবধান, যালিমদের উপর আল্লাহর লা‘নত।

الَّذِينَ يَصُدُّونَ عَنْ سَبِيلِ اللَّهِ وَيَبْغُونَهَا عِوَجًا وَهُمْ بِالْآخِرَةِ هُمْ كَافِرُونَ11.19

আরবি উচ্চারণ
১১.১৯। আল্লাযীনা ইয়াছুদ্দুনা ‘আন্ সাবীলিল্লা-হি অ ইয়াব্গূনাহা- ‘ইওয়াজ্বা-; অহুম্ বিল্আ-খিরাতি হুম্ কা-ফিরূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১৯ যারা আল্লাহর পথ থেকে মানুষকে বাধা দেয় এবং তাকে বক্র করতে চায়। আর এরাই তো আখিরাত অস্বীকারকারী।

أُولَئِكَ لَمْ يَكُونُوا مُعْجِزِينَ فِي الْأَرْضِ وَمَا كَانَ لَهُمْ مِنْ دُونِ اللَّهِ مِنْ أَوْلِيَاءَ يُضَاعَفُ لَهُمُ الْعَذَابُ مَا كَانُوا يَسْتَطِيعُونَ السَّمْعَ وَمَا كَانُوا يُبْصِرُونَ11.20

আরবি উচ্চারণ
১১.২০। উলা – য়িকা লাম্ ইয়াকূনূ মু’জ্বিযীনা ফিল্ র্আদ্বি অ মা-কা-না লাহুম্ মিন্ দূনিল্লা-হি মিন্ আউলিয়া – য়্ ইয়ুদ্বোয়া-‘আফু লাহুমুল্ ‘আযা-ব্; মা-কা-নূ ইয়াস্তাত্বী‘ঊনাস্ সাম্‘আ অমা-কা-নূ ইয়ুব্ছিরূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২০ তারা যমীনে (আল্লাহকে) অক্ষম করতে পারত না এবং আল্লাহ ছাড়া তাদের কোন অভিভাবক ছিল না, তাদের জন্য আযাব দ্বিগুণ করা হবে। তারা শুনতে সক্ষম ছিল না এবং দেখতেও পেত না।

أُولَئِكَ الَّذِينَ خَسِرُوا أَنْفُسَهُمْ وَضَلَّ عَنْهُمْ مَا كَانُوا يَفْتَرُونَ11.21

আরবি উচ্চারণ
১১.২১। উলা – য়িকাল্লাযীনা খাসিরূ য় আন্ফুসাহুম্ অদ্বোয়াল্লা ‘আন্হুম্ মা-কা-নূ ইয়াফ্তারূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২১ এরা তো নিজদেরই ক্ষতি করেছে, আর তারা যা রটিয়ে বেড়াত, তাদের থেকে তা হারিয়ে গেছে।

لَا جَرَمَ أَنَّهُمْ فِي الْآخِرَةِ هُمُ الْأَخْسَرُونَ11.22

আরবি উচ্চারণ
১১.২২। লা-জ্বারামা আন্নাহুম্ ফিল্ আ-খিরাতি হুমুল্ আক্সারূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২২ নিঃসন্দেহে তারাই আখিরাতে সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত।

إِنَّ الَّذِينَ آمَنُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ وَأَخْبَتُوا إِلَى رَبِّهِمْ أُولَئِكَ أَصْحَابُ الْجَنَّةِ هُمْ فِيهَا خَالِدُونَ11.23

আরবি উচ্চারণ
১১.২৩। ইন্না ল্লাযীনা আ-মানূ অ‘আমিলুছ্ ছোয়া-লিহা-তি অআখ্বাতূ য় ইলা- রব্বিহিম্ উলা – য়িকা আছ্হা-বুল জ্বান্নাতি, হুম্ ফীহা-খলিদূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৩ নিশ্চয় যারা ঈমান এনেছে, সৎকর্ম করেছে এবং বিনীত হয়েছে তাদের রবের প্রতি, তারাই জান্নাতবাসী, তারা সেখানে স্থায়ী হবে।

مَثَلُ الْفَرِيقَيْنِ كَالْأَعْمَى وَالْأَصَمِّ وَالْبَصِيرِ وَالسَّمِيعِ هَلْ يَسْتَوِيَانِ مَثَلًا أَفَلَا تَذَكَّرُونَ 11.24

আরবি উচ্চারণ
১১.২৪। মাছালুল্ ফারীক্বাইনি কাল্‘আ’মা- অল্ আছোয়াম্মি অল্ বাছীরি অস্সামী‘ই; হাল্ ইয়াস্তাওয়িয়া-নি মাছালা-; আফালা-তাযাক্কারূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৪ দল দু’টির উপমা হচ্ছে অন্ধ ও বধির এবং চক্ষুষ্মান ও শ্রবণশক্তিসম্পন্নের মত, তুলনায় উভয় দল কি সমান? এরপরও কি তোমরা উপদেশ গ্রহণ করবে না?

وَلَقَدْ أَرْسَلْنَا نُوحًا إِلَى قَوْمِهِ إِنِّي لَكُمْ نَذِيرٌ مُبِينٌ11.25

আরবি উচ্চারণ
১১.২৫। অলাক্বদ্ র্আসাল্না- নূহান্ ইলা-ক্বওমিহী য় ইন্নী লাকুম্ নাযীরুম্ মুবীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৫ আর অবশ্যই আমি নূহকে প্রেরণ করেছিলাম তার কওমের কাছে (এই বার্তা দিয়ে) যে, ‘আমি তোমাদের জন্য স্পষ্ট সতর্ককারী’।

أَنْ لَا تَعْبُدُوا إِلَّا اللَّهَ إِنِّي أَخَافُ عَلَيْكُمْ عَذَابَ يَوْمٍ أَلِيمٍ11.26

আরবি উচ্চারণ
১১.২৬। আল্লা- তা’বুদূ য় ইল্লাল্লা-হ্; ইন্নী য় আখা-ফু ‘আলাইকুম্ ‘আযা-বা ইয়াওমিন্ আলীম্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৬ ‘যেন তোমরা আল্লাহ ছাড়া কারো ইবাদাত না কর। নিশ্চয় আমি তোমাদের উপর যন্ত্রণাদায়ক দিবসের আযাবের ভয় করছি’।

فَقَالَ الْمَلَأُ الَّذِينَ كَفَرُوا مِنْ قَوْمِهِ مَا نَرَاكَ إِلَّا بَشَرًا مِثْلَنَا وَمَا نَرَاكَ اتَّبَعَكَ إِلَّا الَّذِينَ هُمْ أَرَاذِلُنَا بَادِيَ الرَّأْيِ وَمَا نَرَى لَكُمْ عَلَيْنَا مِنْ فَضْلٍ بَلْ نَظُنُّكُمْ كَاذِبِينَ11.27

আরবি উচ্চারণ
১১.২৭। ফাক্ব-লাল্ মালায়ু ল্লাযীনা কাফারূ মিন্ ক্বওমিহী মা- নারা-কা ইল্লা- বাশারাম্ মিছ্লানা- অমা- নারা-কাত্তাবা‘আকা ইল্লাল্লাযীনা হুম্ আরা-যিলুনা- বা-দির্য়া রায়ি, অমা- নারা-লাকুম্ ‘আলাইনা-মিন্ ফাদ্ব্লিম্ বাল্ নাজুন্নকুম্ কা-যিবীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৭ অতঃপর তার কওমের নেতৃস্থানীয়রা, যারা কুফরী করেছিল, তারা বলল, ‘আমরা তো তোমাকে আমাদের মত একজন মানুষ ছাড়া আর কিছু দেখছি না এবং আমরা দেখছি যে, কেবল আমাদের নীচু শ্রেণীর লোকেরাই বিবেচনাহীনভাবে তোমার অনুসরণ করেছে। আর আমাদের উপর তোমাদের কোন শ্রেষ্ঠত্ব আমরা দেখছি না; বরং আমরা তোমাদেরকে মিথ্যাবাদী মনে করছি’।

قَالَ يَا قَوْمِ أَرَأَيْتُمْ إِنْ كُنْتُ عَلَى بَيِّنَةٍ مِنْ رَبِّي وَآتَانِي رَحْمَةً مِنْ عِنْدِهِ فَعُمِّيَتْ عَلَيْكُمْ فَعُمِّيَتْ عَلَيْكُمْ أَنُلْزِمُكُمُوهَا وَأَنْتُمْ لَهَا كَارِهُونَ11.28

আরবি উচ্চারণ
১১.২৮। ক্ব-লা ইয়া-কওমি আরায়াইতুম্ ইন্ কুন্তু ‘আলা-বাইয়্যিনাতিম্ র্মি রব্বী অআ-তা-নী রহ্মাতাম্ মিন্ ‘ইন্দিহী ফা‘উম্মিয়াত্ ‘আলাইকুম্; আনুল্যিমুকুমূহা অআন্তুম্ লাহা- কা-রিহূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৮ সে বলল, ‘হে আমার কওম, তোমরা কি মনে কর, যদি আমি আমার রবের পক্ষ থেকে প্রেরিত প্রমাণের উপর প্রতিষ্ঠিত হই এবং তিনি আমাকে তাঁর পক্ষ থেকে রহমত দিয়ে থাকেন, আর তা তোমাদের কাছে গোপন রাখা হয়, তবে কি আমি তোমাদের উপর তোমাদের অপছন্দ হওয়া সত্ত্বেও তা চাপিয়ে দেব’?

وَيَا قَوْمِ لَا أَسْأَلُكُمْ عَلَيْهِ مَالًا إِنْ أَجْرِيَ إِلَّا عَلَى اللَّهِ وَمَا أَنَا بِطَارِدِ الَّذِينَ آمَنُوا إِنَّهُمْ مُلَاقُو رَبِّهِمْ وَلَكِنِّي أَرَاكُمْ قَوْمًا تَجْهَلُونَ11.29

আরবি উচ্চারণ
১১.২৯। অইয়া-ক্বওমি লা য় আস্য়ালুকুম্ ‘আলাইহি মা-লা-;ইন্ আজ্বরিয়া ইল্লা- ‘আলা ল্লা-হি অমা য় আনা-বিত্বোয়া-রিদিল্ লাযীনা আ-মানূ; ইন্নাহুম্ মুলাকুরব্বিহিম্ অলা-কিন্নী য় আরা-কুম্ ক্বাওমান্ তাজ্বুহালূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.২৯ ‘আর হে আমার কওম, এর বিনিময়ে আমি তোমাদের কাছে কোন সম্পদ চাই না। আমার প্রতিদান শুধু আল্লাহর কাছে। যারা ঈমান এনেছে, আমি তাদের তাড়িয়ে দিতে পারি না। নিশ্চয় তারা তাদের রবের সাথে সাক্ষাৎ করবে। কিন্তু আমি তো দেখছি তোমরা এক অজ্ঞ জাতি’।

وَيَا قَوْمِ مَنْ يَنْصُرُنِي مِنَ اللَّهِ إِنْ طَرَدْتُهُمْ أَفَلَا تَذَكَّرُونَ11.30

আরবি উচ্চারণ
১১.৩০। অ ইয়া-ক্বাওমি মাঁই ইয়ান্ছুরুনী- মিনাল্লা-হি ইন্ ত্বরাত্তুহুম্; আফালা-তাযাক্কারূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩০ ‘হে আমার কওম, যদি আমি তাদেরকে তাড়িয়ে দেই, তবে আল্লাহর আযাব থেকে কে আমাকে সাহায্য করবে? এরপরও কি তোমরা উপদেশ গ্রহণ করবে না’?

وَلَا أَقُولُ لَكُمْ عِنْدِي خَزَائِنُ اللَّهِ وَلَا أَعْلَمُ الْغَيْبَ وَلَا أَقُولُ إِنِّي مَلَكٌ وَلَا أَقُولُ لِلَّذِينَ تَزْدَرِي أَعْيُنُكُمْ لَنْ يُؤْتِيَهُمُ اللَّهُ خَيْرًا اللَّهُ أَعْلَمُ بِمَا فِي أَنْفُسِهِمْ إِنِّي إِذًا لَمِنَ الظَّالِمِينَ11.31

আরবি উচ্চারণ
১১.৩১। অলা য় আকুলু লাকুম্ ‘ইন্দী খাযা – য়িনু ল্লা-হি অলা য় আ’লামুল গইবা অলা য় আকু লু ইন্নী মালাকুঁও অলা য় আকু লু লিল্লাযীনা তায্দারী য় আ’ইয়ুনুকুম্ লাইঁ ইয়ুতিয়াহুমুল্লা-হু খাইরা-; আল্লা-হু আ’লামু বিমা-ফী য় আন্ফুসিহিম্ ইন্নী য় ইযাল্ লামিনাজ্জোয়া-লিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩১ ‘আর আমি তোমাদের বলছি না যে, ‘আমার কাছে আল্লাহর ভাণ্ডারসমূহ আছে’ এবং আমি গায়েব জানি না আর আমি এও বলছি না যে, ‘আমি ফেরেশতা’। তোমাদের চোখে যারা হীন, তাদের সম্পর্কে আমি বলছি না যে, ‘আল্লাহ তাদেরকে কখনো কোন কল্যাণ দান করবেন না’। তাদের অন্তরে যা আছে, সে সম্পর্কে আল্লাহ অধিক অবগত। (যদি এরূপ উক্তি করি) তাহলে নিশ্চয় আমি যালিমদের অন্তর্ভুক্ত হব’।

قَالُوا يَا نُوحُ قَدْ جَادَلْتَنَا فَأَكْثَرْتَ جِدَالَنَا فَأْتِنَا بِمَا تَعِدُنَا إِنْ كُنْتَ مِنَ الصَّادِقِينَ11.32

আরবি উচ্চারণ
১১.৩২। ক্ব-লূ ইয়া-নূহু ক্বদ্ জ্বা-দাল্তানা- ফাআর্ক্ছাতা জ্বিদা-লানা- ফাতিনা- বিমা- তাই’দুনা য় ইন্ কুন্তা মিনাছ্ ছোয়া-দিক্বীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩২ তারা বলল, ‘হে নূহ, তুমি আমাদের সাথে বাদানুবাদ করছ এবং আমাদের সাথে অতিমাত্রায় বিবাদ করেছ । অতএব যার প্রতিশ্র“তি তুমি আমাদেরকে দিচ্ছ, তা আমাদের কাছে নিয়ে আস, যদি তুমি সত্যবাদীদের অন্তর্ভুক্ত হও’।

قَالَ إِنَّمَا يَأْتِيكُمْ بِهِ اللَّهُ إِنْ شَاءَ وَمَا أَنْتُمْ بِمُعْجِزِينَ11.33

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৩। ক্ব-লা ইন্নামা-ইয়াতীকুম্ বিহিল্লা-হু ইন্ শা – য়া অমা য় আন্তুম্ বিমু’জ্বিযীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৩ সে বলল, ‘আল্লাহই তো তোমাদের কাছে তা হাজির করবেন, যদি তিনি চান। আর তোমরা তাকে অক্ষম করতে পারবে না’।

وَلَا يَنْفَعُكُمْ نُصْحِي إِنْ أَرَدْتُ أَنْ أَنْصَحَ لَكُمْ إِنْ كَانَ اللَّهُ يُرِيدُ أَنْ يُغْوِيَكُمْ هُوَ رَبُّكُمْ وَإِلَيْهِ تُرْجَعُونَ11.34

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৪। অলা-ইয়ান্ফা‘উকুম্ নুছ্হী য় ইন্ আরাততু আন্ আন্ছোয়াহা লাকুম্ ইন্ কা-নাল্লা-হু ইয়ুরীদু আইঁ ইয়ুগ্ওয়িইয়াকুম্; হুঅ রব্বুকুম্ অইলাইহি র্তুজ্বা‘ঊন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৪ ‘আর আমি তোমাদেরকে উপদেশ দিতে চাইলেও আমার উপদেশ তোমাদের কোন উপকারে আসবে না, যদি আল্লাহ তোমাদের বিভ্রান্ত করতে চান। তিনি তোমাদের রব এবং তাঁর কাছেই তোমাদেরকে ফিরিয়ে নেয়া হবে’।

أَمْ يَقُولُونَ افْتَرَاهُ قُلْ إِنِ افْتَرَيْتُهُ فَعَلَيَّ إِجْرَامِي وَأَنَا بَرِيءٌ مِمَّا تُجْرِمُونَ 11.35

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৫। আম্ ইয়াকুলূ নাফ্ তারা-হ্; কুল্ ইনিফ্ তারা-ইতুহূ ফা ‘আলাইয়্যা ইজ্বুর-মী অআনা বারী – য়ুম্ মিম্মা-তুজ্বুরিমূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৫ নাকি তারা বলে, ‘সে এটা মনগড়াভাবে রচনা করেছে’। বল, ‘যদি আমি তা মনগড়াভাবে রচনা করে থাকি, তবে আমার অপরাধ আমার উপরই বর্তাবে এবং তোমরা যে অপরাধ করছ, আমি তা থেকে মুক্ত’।

وَأُوحِيَ إِلَى نُوحٍ أَنَّهُ لَنْ يُؤْمِنَ مِنْ قَوْمِكَ إِلَّا مَنْ قَدْ آمَنَ فَلَا تَبْتَئِسْ بِمَا كَانُوا يَفْعَلُونَ11.36

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৬। অ ঊহিয়া ইলা- নূহিন্ আন্নাহূ লাইঁ ইয়ুমিনা মিন্ ক্বওমিকা ইল্লা-মান্ ক্বদ্ আ-মানা ফালা-তাব্তায়িস্ বিমা-কা-নূ ইয়াফ্‘আলূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৬ আর নূহের কাছে ওহী পাঠানো হল যে, ‘যারা ঈমান এনেছে, তারা ছাড়া তোমার কওমের আর কেউ ঈমান আনবে না। সুতরাং তারা যা করে সে জন্য তুমি দুঃখিত হয়ো না’।

وَاصْنَعِ الْفُلْكَ بِأَعْيُنِنَا وَوَحْيِنَا وَلَا تُخَاطِبْنِي فِي الَّذِينَ ظَلَمُوا إِنَّهُمْ مُغْرَقُونَ11.37

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৭। অছ্না‘ইল্ ফুল্কা বিআ’ ইয়ূনিনা-অ অহ্য়িনা- অলা-তুখা-ত্বিব্নী ফিল্লাযীনা জোয়ালামূ ইন্নাহুম্ মুগ্রাকুন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৭ ‘আর তুমি আমার চোখের সামনে ও আমার ওহী অনুসারে নৌকা তৈরী কর। আর যারা যুলম করেছে, তাদের ব্যাপারে তুমি আমার কাছে কোন আবেদন করো না। নিশ্চয় তাদেরকে ডুবানো হবে’।

وَيَصْنَعُ الْفُلْكَ وَكُلَّمَا مَرَّ عَلَيْهِ مَلَأٌ مِنْ قَوْمِهِ سَخِرُوا مِنْهُ قَالَ إِنْ تَسْخَرُوا مِنَّا فَإِنَّا نَسْخَرُ مِنْكُمْ كَمَا تَسْخَرُونَ11.38

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৮। অইয়াছ্না‘উল্ ফুল্কা অকুল্লামা- র্মার ‘আলাইহি মালায়ুম্ মিন্ ক্বওমিহী সাখিরূ মিন্হ্; ক্ব-লা ইন্ তাস্খরূ মিন্না- ফাইন্না-নাস্খরু মিন্কুম্ কামা-তাস্খরূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৮ আর সে নৌকা তৈরী করতে লাগল এবং যখনই তার কওমের নেতৃস্থানীয় কোন ব্যক্তি তার পাশ দিয়ে যেত, তাকে নিয়ে উপহাস করত। সে বলল, ‘যদি তোমরা আমাদের নিয়ে উপহাস কর, তবে আমরাও তোমাদের নিয়ে উপহাস করব, যেমন তোমরা উপহাস করছ’।

فَسَوْفَ تَعْلَمُونَ مَنْ يَأْتِيهِ عَذَابٌ يُخْزِيهِ وَيَحِلُّ عَلَيْهِ عَذَابٌ مُقِيمٌ 11.39

আরবি উচ্চারণ
১১.৩৯। ফাসাওফা তা’লামূনা মাইঁ ইয়াতীহি ‘আযাবুঁই ইয়ুখ্যীহি অ ইয়াহিল্ল ‘আলাইহি ‘আযা-বুম্ মুক্বীম্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৩৯ অতএব, অচিরেই তোমরা জানতে পারবে, কার উপর সে আযাব আসবে যা তাকে লাঞ্ছিত করবে এবং কার উপর আপতিত হবে স্থায়ী আযাব।

حَتَّى إِذَا جَاءَ أَمْرُنَا وَفَارَ التَّنُّورُ قُلْنَا احْمِلْ فِيهَا مِنْ كُلٍّ زَوْجَيْنِ اثْنَيْنِ وَأَهْلَكَ إِلَّا مَنْ سَبَقَ عَلَيْهِ الْقَوْلُ وَمَنْ آمَنَ وَمَا آمَنَ مَعَهُ إِلَّا قَلِيلٌ11.40

আরবি উচ্চারণ
৪০। হাত্তা য় ইযা-জ্বা – য়া আম্রুনা-অফা-রাত্তান্ন রু কুল্ নাহ্মিল্ ফীহা-মিন্ কুল্লিন্ যাওজ্বাইনিছ্ নাইনি অআহ্লাকা ইল্লা-মান্ সাবাক্বা ‘আলাইহিল্ ক্বওলু অমান্ আ-মান্;অমা য় আ-মানা মা‘আহূ য় ইল্লা-ক্বালীল্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪০ অবশেষে যখন আমার আদেশ আসল এবং চুলা উথলে উঠল , আমি বললাম, ‘তুমি তাতে তুলে নাও প্রত্যেক শ্রেণী থেকে জোড়া জোড়া এবং যাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছে তাদের ছাড়া তোমার পরিবারকে এবং যারা ঈমান এনেছে তাদেরকে। আর তার সাথে অল্পসংখ্যকই ঈমান এনেছিল।

وَقَالَ ارْكَبُوا فِيهَا بِسْمِ اللَّهِ مَجْرَاهَا وَمُرْسَاهَا إِنَّ رَبِّي لَغَفُورٌ رَحِيمٌ11.41

আরবি উচ্চারণ
১১.৪১। অক্বর্লা কাবূ ফীহা-বিস্মিল্লা-হি মাজ্বরে-হা-অর্মুসা-হা-; ইন্না রব্বী লাগফূর্রু রহীম্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪১ আর সে বলল, ‘তোমরা এতে আরোহণ কর। এর চলা ও থামা হবে আল্লাহর নামে। নিশ্চয় আমার রব ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।

وَهِيَ تَجْرِي بِهِمْ فِي مَوْجٍ كَالْجِبَالِ وَنَادَى نُوحٌ ابْنَهُ وَكَانَ فِي مَعْزِلٍ يَا بُنَيَّ ارْكَبْ مَعَنَا وَلَا تَكُنْ مَعَ الْكَافِرِينَ11.42

আরবি উচ্চারণ
১১.৪২। অহিয়া তাজ্বুরী বিহিম্ ফী মাওজ্বিন্ ক্বল্জ্বিবালি অ না-দা-নূহুনিব্ নাহূ অকা-না ফী মা’যিলিইঁ ইয়া-বুনাইর্য়্যা কাব্ মা‘আনা- অলা-তাকুম্ মা‘আল্ কা-ফিরীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪২ আর তা পাহাড়সম ঢেউয়ের মধ্যে তাদেরকে নিয়ে চলছিল এবং নূহ তার পুত্রকে ডাক দিল, আর সে ছিল আলাদা স্থানে- ‘হে আমার পুত্র, আমাদের সাথে আরোহণ কর এবং কাফিরদের সাথে থেকো না’।

قَالَ سَآوِي إِلَى جَبَلٍ يَعْصِمُنِي مِنَ الْمَاءِ قَالَ لَا عَاصِمَ الْيَوْمَ مِنْ أَمْرِ اللَّهِ إِلَّا مَنْ رَحِمَ وَحَالَ بَيْنَهُمَا الْمَوْجُ فَكَانَ مِنَ الْمُغْرَقِينَ11.43

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৩। ক্ব-লা সায়া-ওয়ী য় ইলা-জ্বাবালিইঁ ইয়া’ছিমুনী মিনাল্ মা – য়্; ক্ব-লা লা-‘আ-ছিমাল্ ইয়াওমা মিন্ আম্রিল্লা-হি ইল্লা-র্মা রহিমা, অ হা-লা বাইনাহুমাল্ মাওজ্বু ফাকা-না মিনাল্ মুগ্রাক্বীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৩ সে বলল, ‘আমি এক্ষুণি একটি পাহাড়ে আশ্রয় নেব, যা আমাকে পানি থেকে রক্ষা করবে’। সে (নূহ) বলল, ‘যার প্রতি আল্লাহ রহম করেছেন সে ছাড়া আজ আল্লাহর আদেশ থেকে কোন রক্ষাকারী নেই’। এরপর তাদের উভয়ের মধ্যে ঢেউ অন্তরায় হয়ে গেল। অতঃপর সে নিমজ্জিতদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে গেল ।

وَقِيلَ يَا أَرْضُ ابْلَعِي مَاءَكِ وَيَا سَمَاءُ أَقْلِعِي وَغِيضَ الْمَاءُ وَقُضِيَ الْأَمْرُ وَاسْتَوَتْ عَلَى الْجُودِيِّ وَقِيلَ بُعْدًا لِلْقَوْمِ الظَّالِمِينَ11.44

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৪। অক্বীলা ইয়া য় র্আদুব্ লা‘ঈ য় মা-য়াকি অইয়া-সামা-য়ু আক্ব্লি‘ঈ অগীদ্বোয়াল্ মা – য়ু অকুদ্বিয়াল্ আম্রু আস্তাঅত্ ‘আলাল্ জুদিয়্যি অক্বীলা বু’দাল্লিল্ ক্বওমিজ্জোয়া-লিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৪ আর বলা হল, ‘হে যমীন, তুমি তোমার পানি চুষে নাও, আর হে আসমান, বিরত হও’। অতঃপর পানি কমে গেল এবং (আল্লাহর) সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হল, আর নৌকা জুদী পর্বতের উপর থামল এবং ঘোষণা করা হল, ‘ধ্বংস যালিম কওমের জন্য’।

وَنَادَى نُوحٌ رَبَّهُ فَقَالَ رَبِّ إِنَّ ابْنِي مِنْ أَهْلِي وَإِنَّ وَعْدَكَ الْحَقُّ وَأَنْتَ أَحْكَمُ الْحَاكِمِينَ11.45

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৫। অনা-দা-নূর্হু রব্বাহূ ফাক্ব-লা রব্বি ইন্নাব্নী মিন্ আহ্লী অইন্না অ’দাকাল্ হাক্বকু অ আন্তা আহ্কামুল্ হা-কিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৫ আর নূহ তার রবকে ডাকল এবং বলল, ‘হে আমার রব, নিশ্চয় আমার সন্তান আমার পরিবারভুক্ত এবং আপনার ওয়াদা নিশ্চয় সত্য। আর আপনি বিচারকদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ বিচারক’।

قَالَ يَا نُوحُ إِنَّهُ لَيْسَ مِنْ أَهْلِكَ إِنَّهُ عَمَلٌ غَيْرُ صَالِحٍ فَلَا تَسْأَلْنِي مَا لَيْسَ لَكَ بِهِ عِلْمٌ إِنِّي أَعِظُكَ أَنْ تَكُونَ مِنَ الْجَاهِلِينَ 11.46

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৬। ক্ব-লা ইয়া-নূহু ইন্নাহূ লাইসা মিন্ আহ্লিকা, ইন্নাহূ ‘আমালুন্ গাইরু ছোয়া-লিহিন্, ফালা-তাস্য়াল্নি মা-লাইসা লাকা বিহী ‘ইল্ম্; ইন্নী য় আ ‘ইজুকা আন্ তাকূনা মিনাল্ জ্বা-হিলীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৬ তিনি বললেন, ‘হে নূহ, সে নিশ্চয় তোমার পরিবারভুক্ত নয়। সে অবশ্যই অসৎ কর্মপরায়ণ। সুতরাং যে বিষয়ে তোমার কোন জ্ঞান নেই, আমার কাছে তা চেয়ো না। আমি তোমাকে উপদেশ দিচ্ছি, যেন মূর্খদের অন্তর্ভুক্ত না হও’।

قَالَ رَبِّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ أَنْ أَسْأَلَكَ مَا لَيْسَ لِي بِهِ عِلْمٌ وَإِلَّا تَغْفِرْ لِي وَتَرْحَمْنِي أَكُنْ مِنَ الْخَاسِرِينَ11.47

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৭। ক্ব-লা রব্বি ইন্নী য় আ‘ঊযুবিকা আন্ আস্য়ালাকা মা-লাইসা লী বিহী ‘ইল্ম্; অ ইল্লা-তার্গ্ফিলী অর্তাহাম্নী য় আকুম্মিনাল্ খা-সিরীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৭ সে বলল, ‘হে আমার রব, যে বিষয়ে আমার জ্ঞান নেই তা চাওয়া থেকে আমি অবশ্যই আপনার আশ্রয় চাই। আর যদি আপনি আমাকে মাফ না করেন এবং আমার প্রতি রহম না করেন, তবে আমি ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাব’।

قِيلَ يَا نُوحُ اهْبِطْ بِسَلَامٍ مِنَّا وَبَرَكَاتٍ عَلَيْكَ وَعَلَى أُمَمٍ مِمَّنْ مَعَكَ وَأُمَمٌ سَنُمَتِّعُهُمْ ثُمَّ يَمَسُّهُمْ مِنَّا عَذَابٌ أَلِيمٌ11.48

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৮। ক্বীলা ইয়া-নূহুহ্ বিত্ব বিসালা-মিম্ মিন্না-অবারাকা-তিন্ ‘আলাইকা অ‘আলা য় উমামিম্ মিম্মাম্ মা‘আক্; অউমামুন্ সানুমাত্তি‘উহুম্ ছুম্মা ইয়ামাস্সুহুম্ মিন্না-‘আযা-বুন্ আলীম্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৮ বলা হল, ‘হে নূহ, তোমার ও তোমার সাথে যে উম্মাত রয়েছে তাদের উপর আমার পক্ষ থেকে শান্তি ও বরকতসহ অবতরণ কর। আর আরো অনেক উম্মতকে আমি জীবন উপভোগ করতে দেব, তারপর আমার পক্ষ থেকে তাদেরকে স্পর্শ করবে যন্ত্রণাদায়ক আযাব’।

تِلْكَ مِنْ أَنْبَاءِ الْغَيْبِ نُوحِيهَا إِلَيْكَ مَا كُنْتَ تَعْلَمُهَا أَنْتَ وَلَا قَوْمُكَ مِنْ قَبْلِ هَذَا فَاصْبِرْ إِنَّ الْعَاقِبَةَ لِلْمُتَّقِينَ11.49

আরবি উচ্চারণ
১১.৪৯। তিল্কা মিন্ আম্বা – য়িল্ গাইবি নূহী হা য় ইলাইকা, মা-কুন্তা তা’লামুহা য় আন্তা অলা- ক্বওমুকা মিন্ ক্বব্লি হা-যা-; ফার্ছ্বি; ইন্নাল্ ‘আ- ক্বিবাতা লিল্মুত্তাক্বীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৪৯ এগুলো গায়েবের সংবাদ, আমি তোমাকে ওহীর মাধ্যমে তা জানাচ্ছি। ইতঃপূর্বে তা না তুমি জানতে এবং না তোমার কওম। সুতরাং তুমি সবর কর। নিশ্চয় শুভ পরিণাম কেবল মুত্তাকীদের জন্য।

وَإِلَى عَادٍ أَخَاهُمْ هُودًا قَالَ يَا قَوْمِ اعْبُدُوا اللَّهَ مَا لَكُمْ مِنْ إِلَهٍ غَيْرُهُ إِنْ أَنْتُمْ إِلَّا مُفْتَرُونَ11.50

আরবি উচ্চারণ
১১.৫০। অ ইলা-‘আ-দিন্ আখ-হুম্ হূদা-; ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি’বুদুল্লা-হা মা-লাকুম্ মিন্ ইলা-হিন্ গইরুহ্; ইন্ আন্তুম্ ইল্লা-মুফ্তারূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫০ আর আদ জাতির কাছে (প্রেরণ করেছিলাম) তাদের ভাই হূদকে। সে বলেছিল, ‘হে আমার কওম, তোমরা আল্লাহর ইবাদাত কর। তিনি ছাড়া তোমাদের জন্য কোন (সত্য) ইলাহ নেই। তোমরা তো কেবল মিথ্যা রটনাকারী’।

يَا قَوْمِ لَا أَسْأَلُكُمْ عَلَيْهِ أَجْرًا إِنْ أَجْرِيَ إِلَّا عَلَى الَّذِي فَطَرَنِي أَفَلَا تَعْقِلُونَ11.51

আরবি উচ্চারণ
১১.৫১। ইয়া-ক্বওমি লা য় আস্য়ালুকুম্ ‘আলাইহি আজ্বরা-; ইন্ আজ্বুরিয়া ইল্লা-‘আলাল্লাযী ফাত্বোয়ারানী; আফালা-তা’ক্বিলূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫১ ‘হে আমার কওম, আমি তোমাদের কাছে এর বিনিময়ে কোন প্রতিদান চাই না। আমার প্রতিদান তো কেবল তাঁরই কাছে যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন। এরপরও কি তোমরা বুঝবে না’?

وَيَا قَوْمِ اسْتَغْفِرُوا رَبَّكُمْ ثُمَّ تُوبُوا إِلَيْهِ يُرْسِلِ السَّمَاءَ عَلَيْكُمْ مِدْرَارًا وَيَزِدْكُمْ قُوَّةً إِلَى قُوَّتِكُمْ وَلَا تَتَوَلَّوْا مُجْرِمِينَ11.52

আরবি উচ্চারণ
১১.৫২। অইয়া-ক্বওমিস্ তাগ্ফিরূ রব্বাকুম্ ছুম্মা তূবূ য় ইলাইহি ইর্য়ুসিলিস্ সামা – য়া ‘আলাইকুম্ মিদ্রা-রাঁও অ ইয়াযিদ্কুম্ কুওয়্যাতান্ ইলা-কুওয়্যাতিকুম্ অলা-তাতাওয়াল্লাও মুজ্বুরিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫২ ‘হে আমার কওম, তোমরা তোমাদের রবের কাছে ক্ষমা চাও অতঃপর তার কাছে তাওবা কর, তাহলে তিনি তোমাদের উপর মুষলধারে বৃষ্টি পাঠাবেন এবং তোমাদের শক্তির সাথে আরো শক্তি বৃদ্ধি করবেন। আর তোমরা অপরাধী হয়ে বিমুখ হয়ো না’।

قَالُوا يَا هُودُ مَا جِئْتَنَا بِبَيِّنَةٍ وَمَا نَحْنُ بِتَارِكِي آلِهَتِنَا عَنْ قَوْلِكَ وَمَا نَحْنُ لَكَ بِمُؤْمِنِينَ11.53

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৩। ক্ব-লূ ইয়া-হূদু মা- জ্বি’তানা- বিবাইয়িনাতিঁও অমা-নাহ্নু বিতা-রিকী য় আ-লিহাতিনা-‘আন্ ক্বওলিকা অমা-নাহ্নু লাকা বিমুমিনীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৩ তারা বলল, ‘হে হূদ, তুমি আমাদের কাছে কোন স্পষ্ট প্রমাণ নিয়ে আসনি, আর তোমার কথায় আমরা আমাদের উপাস্যদের ত্যাগ করব না এবং আমরা তোমার প্রতি বিশ্বাসীও নই’।

إِنْ نَقُولُ إِلَّا اعْتَرَاكَ بَعْضُ آلِهَتِنَا بِسُوءٍ قَالَ إِنِّي أُشْهِدُ اللَّهَ وَاشْهَدُوا أَنِّي بَرِيءٌ مِمَّا تُشْرِكُونَ11.54

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৪। ইন্না কুলু ইল্লা’তারা-ক্ব বা’দ্বু আ-লিহাতিনা-বিসূ – য়্; ক্ব-লা ইন্নী য় উশ্হিদুল্লা-হা অশ্হাদূ য় আন্নী বারী – য়ুম্ মিম্মা-তুশ্রিকুন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৪ ‘আমরা তো কেবল বলছি যে, ‘আমাদের কোন কোন উপাস্য তোমাকে অমঙ্গল দ্বারা আক্রান্ত করেছে’। সে বলল, ‘নিশ্চয় আমি আল্লাহকে সাক্ষী রাখছি আর তোমরা সাক্ষী থাক যে, আমি অবশ্যই তা থেকে মুক্ত যাকে তোমরা শরীক কর,

مِنْ دُونِهِ فَكِيدُونِي جَمِيعًا ثُمَّ لَا تُنْظِرُونِي11.55

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৫। মিন্ দূনিহী ফাকীদূনী জ্বামী‘আন্ ছুম্মা লা- তুন্জিরূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৫ আল্লাহ ছাড়া। সুতরাং তোমরা সকলে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র কর তারপর আমাকে অবকাশ দিও না’।

إِنِّي تَوَكَّلْتُ عَلَى اللَّهِ رَبِّي وَرَبِّكُمْ مَا مِنْ دَابَّةٍ إِلَّا هُوَ آخِذٌ بِنَاصِيَتِهَا إِنَّ رَبِّي عَلَى صِرَاطٍ مُسْتَقِيمٍ11.56

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৬। ইন্নী তাওয়াক্কাল্তু ‘আলাল্লা-হি রব্বী অ রব্বিকুম্; মা-মিন্ দা – ব্বাতিন্ ইল্লা-হুঅ আ-খিযুম্ বিনা-ছিয়াতিহা-; ইন্না রব্বী ‘আলা- ছিরা-ত্বিম্ মুস্তাক্বীম্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৬ ‘আমি অবশ্যই তাওয়াক্কুল করেছি আমার রব ও তোমাদের রব আল্লাহর উপর, প্রতিটি বিচরণশীল প্রাণীরই তিনি নিয়ন্ত্রণকারী। নিশ্চয় আমার রব সরল পথে আছেন’।

فَإِنْ تَوَلَّوْا فَقَدْ أَبْلَغْتُكُمْ مَا أُرْسِلْتُ بِهِ إِلَيْكُمْ وَيَسْتَخْلِفُ رَبِّي قَوْمًا غَيْرَكُمْ وَلَا تَضُرُّونَهُ شَيْئًا إِنَّ رَبِّي عَلَى كُلِّ شَيْءٍ حَفِيظٌ 11.57

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৭। ফাইন্ তাওয়াল্লাও ফাক্বদ আব্লাগ্তুকুম্ মা য় র্উসিল্তু বিহী য় ইলাইকুম্; অইয়াস্তাখ্লিফু রব্বী ক্বওমান্ গইরাকুম্ অলা-তার্দ্বুরূনাহূ শাইয়া-; ইন্না রব্বী ‘আলা-কুল্লি শাইয়িন্ হাফীজ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৭ ‘অতঃপর তোমরা যদি বিমুখ হও, তবে যা নিয়ে আমি তোমাদের কাছে প্রেরিত হয়েছি তা তো তোমাদের কাছে পৌঁছে দিয়েছি। আর আমার রব তোমাদেরকে ছাড়া অন্য এক জাতিকে স্থলাভিষিক্ত করবেন। আর তোমরা তাঁর কোন ক্ষতি করতে পারবে না। নিশ্চয় আমার রব সব কিছুর হেফাযতকারী’।

وَلَمَّا جَاءَ أَمْرُنَا نَجَّيْنَا هُودًا وَالَّذِينَ آمَنُوا مَعَهُ بِرَحْمَةٍ مِنَّا وَنَجَّيْنَاهُمْ مِنْ عَذَابٍ غَلِيظٍ11.58

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৮। অ লাম্মা-জ্বা – য়া আম্রুনা-নাজ্জ্বাইনা-হূদাঁও অল্লাযীনা আ-মানূ মা‘আহূ বিরহমাতিম্ মিন্না-, অনাজ্জ্বাইনা-হুম মিন্ ‘আযা-বিন্ গলীজ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৮ আর যখন আমার আদেশ আসল, আমি হূদকে ও যারা তার সাথে ঈমান এনেছিল তাদেরকে আমার পক্ষ থেকে রহমত দ্বারা রক্ষা করলাম এবং আমি কঠোর আযাব থেকে তাদেরকে নাজাত দিলাম।

وَتِلْكَ عَادٌ جَحَدُوا بِآيَاتِ رَبِّهِمْ وَعَصَوْا رُسُلَهُ وَاتَّبَعُوا أَمْرَ كُلِّ جَبَّارٍ عَنِيدٍ11.59

আরবি উচ্চারণ
১১.৫৯। অতিল্কা ‘আ-দুন্ জ্বাহাদূ বিআ-ইয়া-তি রব্বিহিম্ অ‘আছোয়াও রুসুলাহূ অত্তাবা‘ঊ য় আম্রা কুল্লি জ্বাব্বা-রিন্ ‘আনীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৫৯ এই আদ জাতি, তারা তাদের রবের আয়াতসমূহ অস্বীকার করেছিল এবং অমান্য করেছিল তাঁর রাসূলদের, আর তারা অনুসরণ করেছিল প্রত্যেক উদ্ধত, হঠকারীর নির্দেশ।

وَأُتْبِعُوا فِي هَذِهِ الدُّنْيَا لَعْنَةً وَيَوْمَ الْقِيَامَةِ أَلَا إِنَّ عَادًا كَفَرُوا رَبَّهُمْ أَلَا بُعْدًا لِعَادٍ قَوْمِ هُودٍ11.60

আরবি উচ্চারণ
১১.৬০। অউত্বি‘ঊ ফী হা-যিহিদ্ দুন্ইয়া-লা’নাতাঁও অ ইয়াওমাল্ ক্বিয়া-মাহ্; আলা য় ইন্না ‘আ-দান্ কাফারূ রব্বাহুম্; আলা-বু’দাল্লি ‘আ-দিন্ ক্বওমি হূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬০ আর এই দুনিয়াতে লা‘নত তাদের পেছনে লাগিয়ে দেয়া হয়েছে এবং কিয়ামত দিবসেও। জেনে রাখ, আদ জাতি নিশ্চয় তাদের রবকে অস্বীকার করেছে। জেনে রাখ, হূদের কওম আদ জাতির জন্য রয়েছে ধ্বংস।

وَإِلَى ثَمُودَ أَخَاهُمْ صَالِحًا قَالَ يَا قَوْمِ اعْبُدُوا اللَّهَ مَا لَكُمْ مِنْ إِلَهٍ غَيْرُهُ هُوَ أَنْشَأَكُمْ مِنَ الْأَرْضِ وَاسْتَعْمَرَكُمْ فِيهَا فَاسْتَغْفِرُوهُ ثُمَّ تُوبُوا إِلَيْهِ إِنَّ رَبِّي قَرِيبٌ مُجِيبٌ11.61

আরবি উচ্চারণ
১১.৬১। অ ইলা-ছামূদা আখা-হুম্ ছোয়া-লিহা-। ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি’বুদুল্লা-হা মা-লাকুম্ মিন্ ইলা-হিন্ গইরুহ্; হুওয়া আন্শায়াকুম্ মিনাল্ র্আদ্বি অস্তা’মারাকুম্ ফীহা ফাস্তাগ্ফিরূহু ছুম্মা তূবূ য় ইলাইহ্; ইন্না রব্বী ক্বরীবুম্ মুজ্বীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬১ আর সামূদ জাতির প্রতি (পাঠিয়েছিলাম) তাদের ভাই সালিহকে। সে বলল, ‘হে আমার কওম, তোমরা আল্লাহর ইবাদাত কর, তিনি ছাড়া তোমাদের কোন (সত্য) ইলাহ নেই, তিনি তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন মাটি থেকে এবং সেখানে তোমাদের জন্য আবাদের ব্যবস্থা করেছেন । সুতরাং তোমরা তাঁর কাছে ক্ষমা চাও, অতঃপর তাঁরই কাছে তাওবা কর। নিশ্চয় আমার রব নিকটে, সাড়াদানকারী’।

قَالُوا يَا صَالِحُ قَدْ كُنْتَ فِينَا مَرْجُوًّا قَبْلَ هَذَا أَتَنْهَانَا أَنْ نَعْبُدَ مَا يَعْبُدُ آبَاؤُنَا وَإِنَّنَا لَفِي شَكٍّ مِمَّا تَدْعُونَا إِلَيْهِ مُرِيبٍ11.62

আরবি উচ্চারণ
১১.৬২। ক্ব-লূ ইয়া-ছোয়া-লিহু ক্বদ্ কুন্তা ফীনা র্মাজুওয়ান্ ক্বব্লা হা-যা য় আতান্হা-না য় আন্ না’বুদা মা-ইয়া’বুদু আ-বা – য়ুনা- অ ইন্নানা-লাফী শাক্কীম্ মিম্মা-তাদ্ঊ’না য় ইলাইহি মুরীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬২ তারা বলল, ‘হে সালিহ, তুমি তো ইতঃপূর্বে আমাদের মধ্যে ছিলে প্রত্যাশিত। তুমি কি আমাদেরকে নিষেধ করছ তাদের উপাসনা করতে আমাদের পিতৃপুরুষরা যাদের উপাসনা করত? তুমি আমাদেরকে যার দিকে আহ্বান করছ, সে ব্যাপারে নিশ্চয় আমরা ঘোর সন্দেহের মধ্যে আছি’।

قَالَ يَا قَوْمِ أَرَأَيْتُمْ إِنْ كُنْتُ عَلَى بَيِّنَةٍ مِنْ رَبِّي وَآتَانِي مِنْهُ رَحْمَةً فَمَنْ يَنْصُرُنِي مِنَ اللَّهِ إِنْ عَصَيْتُهُ فَمَا تَزِيدُونَنِي غَيْرَ تَخْسِيرٍ 11.63

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৩। ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি আরায়াইতুম্ ইন্ কুন্তু ‘আলা-বাইয়্যিনাতিম্ র্মি রব্বী অ আ-তা-নী মিন্হু রাহ্মাতান্ ফামাইঁ ইয়ান্ছুরুনী মিনাল্লা-হি ইন্ ‘আছোয়াইতুহূ ফামা-তাযীদূনানী গইরা তার্খ্সী।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৩ সে বলল, ‘হে আমার কওম, তোমরা কী মনে কর, যদি আমি আমার রবের পক্ষ থেকে স্পষ্ট প্রমাণের উপর থাকি এবং তিনি আমাকে তাঁর পক্ষ থেকে রহমত দান করেন, তাহলে কে আমাকে আল্লাহর (আযাব) থেকে সাহায্য করবে, যদি আমি তাঁর অবাধ্য হই? সুতরাং তোমরা তো কেবল আমার ক্ষতিই বৃদ্ধি করছ’।

وَيَا قَوْمِ هَذِهِ نَاقَةُ اللَّهِ لَكُمْ آيَةً فَذَرُوهَا تَأْكُلْ فِي أَرْضِ اللَّهِ وَلَا تَمَسُّوهَا بِسُوءٍ فَيَأْخُذَكُمْ عَذَابٌ قَرِيبٌ11.64

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৪। অইয়া-ক্বওমি হা-যিহী না-ক্বতুল্লা-হি লাকুম্ আ-ইয়াতান্ ফাযারূহা-তাকুল্ ফী য় র্আদ্বিল্লা-হি অলা-তামাস্সূহা বিসূ – য়িন্ ফা ইয়া খুযাকুম্ ‘আযা-বুন্ ক্বরীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৪ ‘আর হে আমার কওম, এটি আল্লাহর উট, তোমাদের জন্য নিদর্শনস্বরূপ। তাই তোমরা একে ছেড়ে দাও, সে আল্লাহর যমীনে (বিচরণ করে) খাবে এবং কোনরূপ মন্দভাবে তাকে স্পর্শ করো না, তাহলে তোমাদেরকে আশু আযাব পাকড়াও করবে’।

فَعَقَرُوهَا فَقَالَ تَمَتَّعُوا فِي دَارِكُمْ ثَلَاثَةَ أَيَّامٍ ذَلِكَ وَعْدٌ غَيْرُ مَكْذُوبٍ11.65

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৫। ফা‘আক্বরূহা- ফাক্ব-লা তামাত্তাঊ’ ফী দা-রিকুম্ ছালা-ছাতা আইয়্যা-ম্; যা-লিকা অ’দুন্ গইরু মাক্যূব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৫ অতঃপর তারা তাকে হত্যা করল। তাই সে বলল, ‘তোমরা তিন দিন নিজ নিজ গৃহে আনন্দে কাটাও। এ এমন এক ওয়াদা, যা মিথ্যা হবার নয়’।

فَلَمَّا جَاءَ أَمْرُنَا نَجَّيْنَا صَالِحًا وَالَّذِينَ آمَنُوا مَعَهُ بِرَحْمَةٍ مِنَّا وَمِنْ خِزْيِ يَوْمِئِذٍ إِنَّ رَبَّكَ هُوَ الْقَوِيُّ الْعَزِيزُ11.66

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৬। ফালাম্মা-জ্বা – য়া আম্রুনা- নাজ্জ্বাইনা- ছোয়া-লিহাঁও অল্লাযীনা আ-মানূ মা‘আহূ বিরহমাতিম্ মিন্না- অমিন্ খিয্য়ি ইয়াওমিয়িন্; ইন্না রব্বাকা হুওয়াল্ ক্বওয়িইয়ুল্ ‘আযীয্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৬ অতঃপর যখন আমার আদেশ এল, তখন সালিহ ও তার সাথে যারা ঈমান এনেছিল তাদেরকে আমার পক্ষ থেকে রহমত দ্বারা নাজাত দিলাম এবং (নাজাত দিলাম) সেই দিনের লাঞ্ছনা থেকে। নিশ্চয় তোমার রবই শক্তিশালী, পরাক্রমশালী।

وَأَخَذَ الَّذِينَ ظَلَمُوا الصَّيْحَةُ فَأَصْبَحُوا فِي دِيَارِهِمْ جَاثِمِينَ11.67

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৭। অ আখাযাল্লাযীনা জোয়ালামুছ্ ছোয়াইহাতু ফাআছ্বাহূ ফী দিয়া-রিহিম্ জ্বা-ছিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৭ আর যারা যুলম করেছিল, বিকট আওয়াজ তাদেরকে পাকড়াও করল, ফলে তারা নিজদের গৃহে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকল।

كَأَنْ لَمْ يَغْنَوْا فِيهَا أَلَا إِنَّ ثَمُودَ كَفَرُوا رَبَّهُمْ أَلَا بُعْدًا لِثَمُودَ11.68

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৮। কাআল লাম্ ইয়াগ্নাও ফীহা-; আলা য় ইন্না ছামূদা কাফারূ রব্বাহুম্; আলা-বু’দাল্লি ছামূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৮ যেন তারা সেগুলোতে বসবাসই করেনি। জেনে রাখ, নিশ্চয় সামূদ জাতি তাদের রবকে অস্বীকার করেছে। জেনে রাখ, সামূদ জাতির জন্য রয়েছে ধ্বংস।

وَلَقَدْ جَاءَتْ رُسُلُنَا إِبْرَاهِيمَ بِالْبُشْرَى قَالُوا سَلَامًا قَالَ سَلَامٌ فَمَا لَبِثَ أَنْ جَاءَ بِعِجْلٍ حَنِيذٍ11.69

আরবি উচ্চারণ
১১.৬৯। অ লাক্বদ্ জ্বা – য়াত্ রুসূলুনা য় ইব্রা-হীমা বিল্বুশ্রা- ক্ব-লূ সালা-মা-; ক্ব-লা সালামুন্ ফামা-লাবিছা আন্ জ্বা – য়া বি‘ইজ্বুলিন্ হানীয্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৬৯ আর অবশ্যই আমার ফেরেশতারা সুসংবাদ নিয়ে ইবরাহীমের কাছে আসল, তারা বলল, ‘সালাম’। সেও বলল, ‘সালাম’। বিলম্ব না করে সে একটি ভুনা গো বাছুর নিয়ে আসল।

فَلَمَّا رَأَى أَيْدِيَهُمْ لَا تَصِلُ إِلَيْهِ نَكِرَهُمْ وَأَوْجَسَ مِنْهُمْ خِيفَةً قَالُوا لَا تَخَفْ إِنَّا أُرْسِلْنَا إِلَى قَوْمِ لُوطٍ11.70

আরবি উচ্চারণ
১১.৭০। ফালাম্মা- রায়া য় আই দিয়াহুম্ লা-তাছিলু ইলাইহি নাকিরহুম্ অ আওজ্বাসা মিন্হুম্ খী ফাহ্; ক্ব-লূ লা-তাখাফ্ ইন্না য় র্উসিল্না য় ইলা-ক্বওমি লূত্ব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭০ অতঃপর যখন সে দেখতে পেল, তাদের হাত এর প্রতি পৌঁছছে না, তখন তাদেরকে অস্বাভাবিক মনে করল এবং সে তাদের থেকে ভীতি অনুভব করল। তারা বলল, ‘ভয় করো না, নিশ্চয় আমরা লূতের কওমের কাছে প্রেরিত হয়েছি’।

وَامْرَأَتُهُ قَائِمَةٌ فَضَحِكَتْ فَبَشَّرْنَاهَا بِإِسْحَاقَ وَمِنْ وَرَاءِ إِسْحَاقَ يَعْقُوبَ11.71

আরবি উচ্চারণ
১১.৭১। অম্রায়াতুহূ ক্ব – য়িমাতুন্ ফাদ্বোয়াহিকাত্ ফাবার্শ্শানা-হা- বিইস্হা-ক্ব অমিঁও অর – য়ি ইস্হা-ক্বা ইয়া’কুব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭১ আর তার স্ত্রী দাঁড়ানো ছিল, সে হেসে উঠল। অতঃপর আমি তাকে সুসংবাদ দিলাম ইসহাকের ও ইসহাকের পরে ইয়া‘কূবের।

قَالَتْ يَا وَيْلَتَى أَأَلِدُ وَأَنَا عَجُوزٌ وَهَذَا بَعْلِي شَيْخًا إِنَّ هَذَا لَشَيْءٌ عَجِيبٌ 11.72

আরবি উচ্চারণ
১১.৭২। ক্ব -লাত্ ইয়া-অইলাতা য় আয়ালিদু অ আনা‘আজু যুঁও অহা-যা-বা’লী শাইখা-; ইন্না হা-যা-লাশাইয়ুন্ ‘আজ্বীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭২ সে বলল, ‘হায়, কী আশ্চর্য! আমি সন্তান প্রসব করব, অথচ আমি বৃদ্ধা, আর এ আমার স্বামী, বৃদ্ধ? এটা তো অবশ্যই এক আশ্চর্যজনক ব্যাপার’!

قَالُوا أَتَعْجَبِينَ مِنْ أَمْرِ اللَّهِ رَحْمَةُ اللَّهِ وَبَرَكَاتُهُ عَلَيْكُمْ أَهْلَ الْبَيْتِ إِنَّهُ حَمِيدٌ مَجِيدٌ11.73

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৩। ক্ব-লূ য় আতা’জ্বাবীনা মিন্ আম্রিল্লা-হি রাহ্মাতুল্লা-হি অবারাকা-তুহূ ‘আলাইকুম্ আহ্লাল বাইত্;ইন্নাহূ হামীদুম্ মাজ্বীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৩ তারা বলল, ‘আল্লাহর সিদ্ধান্তে তুমি আশ্চর্য হচ্ছ? হে নবী পরিবার, তোমাদের উপর আল্লাহর রহমত ও তাঁর বরকত। নিশ্চয় তিনি প্রশংসিত সম্মানিত’।

فَلَمَّا ذَهَبَ عَنْ إِبْرَاهِيمَ الرَّوْعُ وَجَاءَتْهُ الْبُشْرَى يُجَادِلُنَا فِي قَوْمِ لُوطٍ11.74

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৪। ফালাম্মা-যাহাবা ‘আন্ ইব্রা-হীর্মা রাওঊ’ অজ্বা – য়াত্হুল্ বুশ্রা-ইয়ুজ্বা-দিলুনা- ফী ক্বওমি লূত্বু।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৪ অতঃপর যখন ইবরাহীম থেকে ভয় দূর হল এবং তার কাছে সুসংবাদ এল, তখন সে লূতের কওম সম্পর্কে আমার সাথে বাদানুবাদ করতে লাগল।

إِنَّ إِبْرَاهِيمَ لَحَلِيمٌ أَوَّاهٌ مُنِيبٌ11.75

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৫। ইন্না ইব্রা-হীমা লাহালীমুন্ আওয়্যা-হুম্ মুনীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৫ নিশ্চয় ইবরাহীম অত্যন্ত সহনশীল, অধিক অনুনয় বিনয়কারী, আল্লাহমুখী।

يَا إِبْرَاهِيمُ أَعْرِضْ عَنْ هَذَا إِنَّهُ قَدْ جَاءَ أَمْرُ رَبِّكَ وَإِنَّهُمْ آتِيهِمْ عَذَابٌ غَيْرُ مَرْدُودٍ11.76

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৬। ইয়া য় ইব্রা-হীমু আ’রিদ্ব ‘আন হা-যা-, ইন্নাহূ ক্বদ্ জ্বা – য়া আম্রু রব্বিকা, অ ইন্নাহুম্ আ-তীহিম্ ‘আযা-বুন্ গইরু র্মাদূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৬ হে ইবরাহীম, তুমি এ থেকে বিরত হও। নিশ্চয় তোমার রবের সিদ্ধান্ত এসে গেছে এবং নিশ্চয় তাদের উপর আসবে আযাব, যা প্রতিহত হবার নয়।

وَلَمَّا جَاءَتْ رُسُلُنَا لُوطًا سِيءَ بِهِمْ وَضَاقَ بِهِمْ ذَرْعًا وَقَالَ هَذَا يَوْمٌ عَصِيبٌ 11.77

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৭। অলাম্মা-জ্বা – য়াত্ রুসুলুনা- লূ-ত্বোয়ান্ সী – য়া বিহিম্ অদ্বোয়া-ক্ব বিহিম্ র্যা‘আঁও অক্ব -লা হা-যা- ইয়াওমুন্ ‘আছীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৭ আর যখন লূতের কাছে আমার ফেরেশতা আসল, তখন তাদের (আগমনের) কারণে তার অস্বস্তিবোধ হল এবং তার অন্তর খুব সঙ্কুচিত হয়ে গেল। আর সে বলল, ‘এ তো কঠিন দিন’।

وَجَاءَهُ قَوْمُهُ يُهْرَعُونَ إِلَيْهِ وَمِنْ قَبْلُ كَانُوا يَعْمَلُونَ السَّيِّئَاتِ قَالَ يَا قَوْمِ هَؤُلَاءِ بَنَاتِي هُنَّ أَطْهَرُ لَكُمْ فَاتَّقُوا اللَّهَ وَلَا تُخْزُونِي فِي ضَيْفِي أَلَيْسَ مِنْكُمْ رَجُلٌ رَشِيدٌ11.78

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৮। অজ্বা – য়াহূ ক্বওমুহূ ইয়ুহ্রা‘ঊনা ইলাইহ্; অমিন্ ক্বব্লু কা-নূ ইয়া’মালূনাস্ সাইয়্যিয়া-ত্; ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি হা – উলা – য়ি বানা-তীহুন্না আত্ব হারু লাকুম্ ফাত্তাকুল্লা-হা অলা-তুখ্যূনি ফী দ্বোয়াইফী; আলাইসা মিন্কুম্ রাজ্বুর্লু রশীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৮ আর তার কওম তার কাছে ছুটে আসল এবং ইতঃপূর্বে তারা মন্দ কাজ করত। সে বলল, ‘হে আমার কওম, এরা আমার মেয়ে, তারা তোমাদের জন্য পবিত্র। সুতরাং তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং আমার মেহমানদের ব্যাপারে তোমরা আমাকে অপমানিত করো না। তোমাদের মধ্যে কি কোন সুবোধ ব্যক্তি নেই’?

قَالُوا لَقَدْ عَلِمْتَ مَا لَنَا فِي بَنَاتِكَ مِنْ حَقٍّ وَإِنَّكَ لَتَعْلَمُ مَا نُرِيدُ11.79

আরবি উচ্চারণ
১১.৭৯। ক্ব-লূ লাক্বদ্ ‘আলিম্তা মা-লানা- ফী বানা-তিকা মিন্ হাক্বক্বিন্ অইন্নাকা লাতা’লামু মা-নুরীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৭৯ তারা বলল, ‘তুমি অবশ্যই জান, তোমার মেয়েদের ব্যাপারে আমাদের কোন প্রয়োজন নেই। আর আমরা কী চাই, তা তুমি নিশ্চয় জান’।

قَالَ لَوْ أَنَّ لِي بِكُمْ قُوَّةً أَوْ آوِي إِلَى رُكْنٍ شَدِيدٍ11.80

আরবি উচ্চারণ
১১.৮০। ক্ব-লা লাও আন্না লীবিকুম্ কুওয়্যাতান্ আও আ-ওয়ী য় ইলা-রুক্নিন্ শাদীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮০ সে বলল, ‘তোমাদের প্রতিরোধে যদি আমার কোন শক্তি থাকত অথবা আমি কোন সুদৃঢ় স্তম্ভের আশ্রয় নিতে পারতাম’ !

قَالُوا يَا لُوطُ إِنَّا رُسُلُ رَبِّكَ لَنْ يَصِلُوا إِلَيْكَ فَأَسْرِ بِأَهْلِكَ بِقِطْعٍ مِنَ اللَّيْلِ فَأَسْرِ بِأَهْلِكَ بِقِطْعٍ مِنَ اللَّيْلِ وَلَا يَلْتَفِتْ مِنْكُمْ أَحَدٌ إِلَّا امْرَأَتَكَ إِنَّهُ مُصِيبُهَا مَا أَصَابَهُمْ إِنَّ مَوْعِدَهُمُ الصُّبْحُ أَلَيْسَ الصُّبْحُ بِقَرِيبٍ11.81

আরবি উচ্চারণ
১১.৮১। ক্বালূ ইয়া-লূত্ব ইন্না- রুসুলু রব্বিকা লাইঁ ইয়াছিলূ য় ইলাইকা ফাআস্রি বিআহ্লিকা বিক্বিত্বুই’ম্ মিনাল লাইলি অলা-ইয়াল্তাফিত্ মিন্কুম্ আহাদুন্ ইল্লা ম্রয়াতাক্; ইন্নাহূ মুছীবুহা-মা য় আছোয়া-বাহুম্; ইন্না মাও ই’দাহুমু ছ্ছুব্হু; আলাইসাস্ ছুব্হু বিক্বরীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮১ তারা বলল, ‘হে লূত, আমরা তোমার রবের প্রেরিত ফেরেশতা, তারা কখনো তোমার কাছে পৌঁছতে পারবে না। সুতরাং তুমি তোমার পরিবার নিয়ে রাতের কোন এক অংশে রওয়ানা হও, আর তোমাদের কেউ পিছে তাকাবে না। তবে তোমার স্ত্রী (রওয়ানা হবে না), কেননা তাকে তা-ই আক্রান্ত করবে যা তাদেরকে আক্রান্ত করবে। নিশ্চয় তাদের (আযাবের) নির্ধারিত সময় হচ্ছে সকাল। সকাল কি নিকটে নয়’?

فَلَمَّا جَاءَ أَمْرُنَا جَعَلْنَا عَالِيَهَا سَافِلَهَا وَأَمْطَرْنَا عَلَيْهَا حِجَارَةً مِنْ سِجِّيلٍ مَنْضُودٍ11.82

আরবি উচ্চারণ
১১.৮২। ফালাম্মা- জ্বা – য়া আম্রুনা- জ্বা‘আল্না- ‘আ-লিয়াহা-সা-ফিলাহা-অ আম্ত্বোর্য়ানা-‘আলাইহা- হিজ্বা-রাতাঁম্ মিন্ সিজ্জ্বীলিম্ মান্দ্বূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮২ অতঃপর যখন আমার আদেশ এসে গেল, তখন আমি জনপদের উপরকে নীচে উল্টে দিলাম এবং ক্রমাগত পোড়ামাটির পাথর বর্ষণ করলাম,

مُسَوَّمَةً عِنْدَ رَبِّكَ وَمَا هِيَ مِنَ الظَّالِمِينَ بِبَعِيدٍ11.83

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৩। মুসাঅমাতান্ ‘ইন্দা রব্বিক্; অমা-হিয়া মিনাজ্জোয়া-লিমীনা বিবা‘ঈদ।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৩ যা চি‎িহ্নত ছিল তোমার রবের কাছে। আর তা যালিমদের থেকে দূরে নয়।

وَإِلَى مَدْيَنَ أَخَاهُمْ شُعَيْبًا قَالَ يَا قَوْمِ اعْبُدُوا اللَّهَ مَا لَكُمْ مِنْ إِلَهٍ غَيْرُهُ وَلَا تَنْقُصُوا الْمِكْيَالَ وَالْمِيزَانَ إِنِّي أَرَاكُمْ بِخَيْرٍ وَإِنِّي أَخَافُ عَلَيْكُمْ عَذَابَ يَوْمٍ مُحِيطٍ11.84

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৪। অ ইলা-মাদ্ইয়ানা আখ-হুম্ শু‘আইবা-; ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি’বুদুল্লা-হা মা-লাকুম্ মিন্ ইলা-হিন্ গইরুহ্; অলা-তান্ক্বুছুল্ মিক্ইয়া-লা অল্মীযা-না ইন্নী য় আর-কুম্ বিখইরিঁও অইন্নী য় আখ-ফু ‘আলাইকুম্ ‘আযা-বা ইয়াওমিম্ মুহীত্ব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৪ আর মাদইয়ানে আমি (পাঠিয়েছিলাম) তাদের ভাই শু‘আইবকে। সে বলল, ‘হে আমার কওম, তোমরা আল্লাহর ইবাদাত কর, তিনি ছাড়া তোমাদের কোন (সত্য) ইলাহ নেই এবং মাপ ও ওযন কম করো না; আমি তো তোমাদের প্রাচুর্যশীল দেখছি, কিন্তু আমি তোমাদের উপর এক সর্বগ্রাসী দিনের আযাবের ভয় করছি’।

وَيَا قَوْمِ أَوْفُوا الْمِكْيَالَ وَالْمِيزَانَ بِالْقِسْطِ وَلَا تَبْخَسُوا النَّاسَ أَشْيَاءَهُمْ وَلَا تَعْثَوْا فِي الْأَرْضِ مُفْسِدِينَ11.85

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৫। অইয়া-ক্বওমি আওফুল্ মিক্ইয়া-লা অল্মীযা-না বিল্কিস্ত্বি অলা-তাব্ খাসুন্না-সা আশ্ইয়া – য়া হুম্ অলা-ত্বা’ছাও ফীল্ র্আদ্বি মুফ্সিদীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৫ ‘আর হে আমার কওম, মাপ ও ওযন পূর্ণ কর ইনসাফের সাথে এবং মানুষকে তাদের পণ্য কম দিও না; আর যমীনে ফাসাদ সৃষ্টি করে বেড়িও না,

بَقِيَّةُ اللَّهِ خَيْرٌ لَكُمْ إِنْ كُنْتُمْ مُؤْمِنِينَ وَمَا أَنَا عَلَيْكُمْ بِحَفِيظٍ11.86

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৬। বাক্বিইয়াতুল্লা-হি খইরুল্লাকুম্ ইন্ কুন্তুম্ মুমিনীনা, অমা য় আনা ‘আলাইকুম্ বিহাফীজ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৬ ‘আল্লাহর দেয়া উদ্বৃত্ত লাভ তোমাদের জন্য কল্যাণকর, যদি তোমরা মুমিন হও। আর আমি তো তোমাদের হিফাযতকারী নই’।

قَالُوا يَا شُعَيْبُ أَصَلَاتُكَ تَأْمُرُكَ أَنْ نَتْرُكَ مَا يَعْبُدُ آبَاؤُنَا أَوْ أَنْ نَفْعَلَ فِي أَمْوَالِنَا أَوْ أَنْ نَفْعَلَ فِي أَمْوَالِنَا مَا نَشَاءُ إِنَّكَ لَأَنْتَ الْحَلِيمُ الرَّشِيدُ11.87

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৭। ক্ব-লূ ইয়া-শু‘আইবু আ ছলা-তুকা তামুরুকা আন্ নাত্রুকা মা-ইয়া’বুদু আ-বা – য়ুনা য় আও আন্নাফ্‘আলা ফী য় আম্ওয়া-লিনা- মা-নাশা – য়্; ইন্নাকা লাআন্তাল্ হালীর্মু রশীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৭ তারা বলল, ‘হে শু‘আইব, তোমার সালাত কি তোমাকে এই নির্দেশ প্রদান করে যে, আমাদের পিতৃপুরুষগণ যাদের উপাসনা করত, আমরা তাদের ত্যাগ করি? অথবা আমাদের সম্পদে আমরা ইচ্ছামত যা করি তাও (ত্যাগ করি?) তুমি তো বেশ সহনশীল সুবোধ’!

قَالَ يَا قَوْمِ أَرَأَيْتُمْ إِنْ كُنْتُ عَلَى بَيِّنَةٍ مِنْ رَبِّي وَرَزَقَنِي مِنْهُ رِزْقًا حَسَنًا وَمَا أُرِيدُ أَنْ أُخَالِفَكُمْ إِلَى مَا أَنْهَاكُمْ عَنْهُ إِنْ أُرِيدُ إِلَّا الْإِصْلَاحَ مَا اسْتَطَعْتُ وَمَا تَوْفِيقِي إِلَّا بِاللَّهِ عَلَيْهِ تَوَكَّلْتُ وَإِلَيْهِ أُنِيبُ11.88

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৮। ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি আরায়াইতুম্ ইন্ কুন্তু ‘আলা-বাইয়িনাতিম্ র্মি রব্বী অরযাক্বানী মিনহু রিয্ক্বন্ হাসানা-; অমা য় উরীদু আন্ উখা-লিফাকুম্ ইলা- মা য় আন্হা-কুম্ ‘আন্হু; ইন্ উরীদু ইল্লাল্ ইছ্লা-হা মাস্ তাত্বোয়া’তু অমা-তাওফীক্বী য় ইল্লা- বিল্লা-হ্; ‘আলাইহি তাঅক্কাল্তু অ ইলাইহি উনীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৮ সে বলল, ‘হে আমার কওম, তোমরা কী মনে কর, আমি যদি আমার রবের পক্ষ থেকে স্পষ্ট প্রমাণের উপর থাকি এবং তিনি আমাকে তাঁর পক্ষ থেকে উত্তম রিয্ক দান করে থাকেন (তাহলে কী করে আমি আমার দায়িত্ব পরিত্যাগ করব)! যে কাজ থেকে আমি তোমাদেরকে নিষেধ করছি, তোমাদের বিরোধিতা করে সে কাজটি আমি করতে চাই না। আমি আমার সাধ্যমত সংশোধন চাই। আল্লাহর সহায়তা ছাড়া আমার কোন তওফীক নেই। আমি তাঁরই উপর তাওয়াক্কুল করেছি এবং তাঁরই কাছে ফিরে যাই’।

وَيَا قَوْمِ لَا يَجْرِمَنَّكُمْ شِقَاقِي أَنْ يُصِيبَكُمْ مِثْلُ مَا أَصَابَ قَوْمَ نُوحٍ أَوْ قَوْمَ هُودٍ أَوْ قَوْمَ صَالِحٍ وَمَا قَوْمُ لُوطٍ مِنْكُمْ بِبَعِيدٍ 11.89

আরবি উচ্চারণ
১১.৮৯। অ ইয়া-ক্বওমি লা-ইয়াজ্বুরিমান্নাকুম্ শিক্ব-ক্বী য় আইঁ ইয়ুছীবাকুম্ মিছ্লু মা য় আছোয়া-বা ক্বওমা নূহিন্ আও ক্বওমা হূদিন্ আও ক্বওমা ছোয়া-লিহ্; অমা-ক্বওমু লূত্বিম্ মিন্কুম্ বিবা‘ঈদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৮৯ ‘আর হে আমার কওম, আমার সাথে বৈরিতা তোমাদেরকে যেন এমন কাজে প্ররোচিত না করে যার ফলে তোমাদের সেরূপ আযাব আসবে যেরূপ এসেছিল নূহের কওমের উপর অথবা হূদের কওমের উপর অথবা সালিহের কওমের উপর। আর লূতের কওম তো তোমাদের থেকে দূরে নয়’।

وَاسْتَغْفِرُوا رَبَّكُمْ ثُمَّ تُوبُوا إِلَيْهِ إِنَّ رَبِّي رَحِيمٌ وَدُودٌ11.90

আরবি উচ্চারণ
১১.৯০। অস্তাগ্ফিরূ রব্বাকুম্ ছুম্মা তূবূ য় ইলাইহ্; ইন্না রব্বী রাহীমুঁও অদূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯০ ‘আর তোমরা তোমাদের রবের কাছে ইস্তিগফার কর অতঃপর তাঁরই কাছে তাওবা কর। নিশ্চয় আমার রব পরম দয়ালু, অতীব ভালবাসা পোষণকারী’।

قَالُوا يَا شُعَيْبُ مَا نَفْقَهُ كَثِيرًا مِمَّا تَقُولُ وَإِنَّا لَنَرَاكَ فِينَا ضَعِيفًا وَلَوْلَا رَهْطُكَ لَرَجَمْنَاكَ وَمَا أَنْتَ عَلَيْنَا بِعَزِيزٍ11.91

আরবি উচ্চারণ
১১.৯১। ক্ব-লূ ইয়া শু‘আইবু মা-নাফ্ক্বহু ক্বছীরাঁম্ মিম্মা-তাকুলু অ ইন্না-লানার-কা-ফীনা-দ্বোয়া‘ঈফান্, অলাওলা-রাহ্ত্বকা লারাজ্বাম্না-কা অমা য় আন্তা ‘আলাইনা বি‘আযীয্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯১ তারা বলল, ‘হে শু‘আইব, তুমি যা বল, তার অনেক কিছুই আমরা বুঝি না। আর তোমাকে তো আমরা আমাদের মধ্যে দুর্বলই দেখতে পাচ্ছি। যদি তোমার আত্মীয়-স্বজন না থাকত, তবে আমরা তোমাকে অবশ্যই পাথর মেরে হত্যা করতাম। আর আমাদের উপর তুমি শক্তিশালী নও’।

قَالَ يَا قَوْمِ أَرَهْطِي أَعَزُّ عَلَيْكُمْ مِنَ اللَّهِ وَاتَّخَذْتُمُوهُ وَرَاءَكُمْ ظِهْرِيًّا إِنَّ رَبِّي بِمَا تَعْمَلُونَ مُحِيطٌ11.92

আরবি উচ্চারণ
১১.৯২। ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমি আরহ্ত্বী য় আ ‘আয্যু ‘আলাইকুম্ মিনাল্লা-হ্; অত্তাখায্তুমূহু অরা – য়াকুম্ জিহ্রিয়্যা-;ইন্না রব্বী বিমা- তা’মালূনা মুহীত্ব।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯২ সে বলল, ‘হে আমার কওম! আমার স্বজনরা কি তোমাদের কাছে আল্লাহ অপেক্ষা অধিক সম্মানিত? আর তোমরা তাঁকে একেবারে পেছনে ঠেলে দিলে? তোমরা যা কর, নিশ্চয় আমার রব তা পরিবেষ্টন করে আছেন’।

وَيَا قَوْمِ اعْمَلُوا عَلَى مَكَانَتِكُمْ إِنِّي عَامِلٌ سَوْفَ تَعْلَمُونَ مَنْ يَأْتِيهِ عَذَابٌ يُخْزِيهِ سَوْفَ تَعْلَمُونَ مَنْ يَأْتِيهِ عَذَابٌ يُخْزِيهِ وَمَنْ هُوَ كَاذِبٌ وَارْتَقِبُوا إِنِّي مَعَكُمْ رَقِيبٌ11.93

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৩। অইয়া-ক্বওমি’মালূ ‘আলা-মাকা-নাতিকুম্ ইন্নী ‘আ-মিল্; সাওফা তা’লামূনা মাইঁ ইয়াতী হি ‘আযা-বুঁই ইয়ুখ্যীহি অমান্ হুঅ কা-যিব্; র্অতাক্বিবূ য় ইন্নী মা‘আকুম্ রক্বীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৩ ‘আর হে আমার কওম, তোমরা তোমাদের অবস্থানে কাজ করে যাও, আমিও কাজ করছি। অচিরেই তোমরা জানতে পারবে কার কাছে আসবে সে আযাব যা তাকে লাঞ্ছিত করবে এবং কে মিথ্যাবাদী। আর তোমরা অপেক্ষা কর, আমিও তোমাদের সাথে অপেক্ষমান।

وَلَمَّا جَاءَ أَمْرُنَا نَجَّيْنَا شُعَيْبًا وَالَّذِينَ آمَنُوا مَعَهُ بِرَحْمَةٍ مِنَّا وَأَخَذَتِ الَّذِينَ ظَلَمُوا الصَّيْحَةُ فَأَصْبَحُوا فِي دِيَارِهِمْ جَاثِمِينَ11.94

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৪। অলাম্মা-জ্বা – য়া আম্রুনা- নাজ্জ্বাইনা- শু‘আইবাঁও ফী দিয়া- রিহিম্ জ্বা-সিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৪ আর যখন আমার আদেশ আসল, তখন শু‘আইব ও তার সাথে যারা ঈমান এনেছে, তাদেরকে আমার পক্ষ থেকে রহমত দ্বারা নাজাত দিলাম এবং যারা যুলম করেছিল তাদেরকে পাকড়াও করল বিকট আওয়াজ। ফলে তারা নিজ নিজ গৃহে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকল।

كَأَنْ لَمْ يَغْنَوْا فِيهَا أَلَا بُعْدًا لِمَدْيَنَ كَمَا بَعِدَتْ ثَمُودُ11.95

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৫। ক্বআল্লাম্ ইয়াগ্নাও ফীহা-; আলা-বু’দা ল্লিমাদ্ইয়ানা কামা- বা‘ইদাত্ ছামূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৫ যেন তারা সেখানে বসবাসই করেনি। জেনে রাখ, ধ্বংস মাদইয়ানের জন্য, যেরূপ ধ্বংস হয়েছে সামূদ জাতি।

وَلَقَدْ أَرْسَلْنَا مُوسَى بِآيَاتِنَا وَسُلْطَانٍ مُبِينٍ11.96

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৬। অলাক্বদ্ র্আসাল্না- মূসা- বিআ-ইয়া-তিনা- অ সুল্ত্বোয়া-নিম্ মুবীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৬ আর আমি মূসাকে আমার আয়াতসমূহ ও স্পষ্ট প্রমাণ দিয়ে পাঠিয়েছি,

إِلَى فِرْعَوْنَ وَمَلَئِهِ فَاتَّبَعُوا أَمْرَ فِرْعَوْنَ وَمَا أَمْرُ فِرْعَوْنَ بِرَشِيدٍ 11.97

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৭। ইলা-র্ফি‘আউনা অ মালায়িহী ফাত্তাবা‘ঊ য় আম্রা র্ফি‘আঊনা, অমা য় আম্রু র্ফি‘আঊনা বিরশীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৭ ফির‘আউন ও তার নেতৃবৃন্দের কাছে। অতঃপর তারা ফির‘আউনের নির্দেশের অনুসরণ করল। আর ফির‘আউনের নির্দেশ সঠিক ছিল না।

يَقْدُمُ قَوْمَهُ يَوْمَ الْقِيَامَةِ فَأَوْرَدَهُمُ النَّارَ وَبِئْسَ الْوِرْدُ الْمَوْرُودُ11.98

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৮। ইয়াক্বদুমু ক্বওমাহূ ইয়াওমাল্ ক্বিয়া-মাতি ফাআওরাদা হুমুন্নার্-; অবিসাল্ ওর্য়িদুল্ মাওরূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৮ কিয়ামত দিবসে সে তার কওমের অগ্রভাগে থাকবে এবং তাদেরকে আগুনে উপনীত করে দেবে। যেখানে তারা উপনীত হবে সেটা উপনীত হওয়ার কতইনা নিকৃষ্ট স্থান!

وَأُتْبِعُوا فِي هَذِهِ لَعْنَةً وَيَوْمَ الْقِيَامَةِ بِئْسَ الرِّفْدُ الْمَرْفُودُ11.99

আরবি উচ্চারণ
১১.৯৯। অউত্বি‘ঊ ফী হা-যিহী লা’নাতাঁও অ ইয়াওমাল্ ক্বিয়া-মাহ্; বি’র্সা রিফ্দুল্ র্মাফূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.৯৯ আর এখানে (দুনিয়ায়) লা‘নত তাদের পেছনে লাগিয়ে দেয়া হয়েছে এবং কিয়ামত দিবসেও। কি নিকৃষ্ট প্রতিদান, যা তাদের দেয়া হবে।

ذَلِكَ مِنْ أَنْبَاءِ الْقُرَى نَقُصُّهُ عَلَيْكَ مِنْهَا قَائِمٌ وَحَصِيدٌ11.100

আরবি উচ্চারণ
১১.১০০। যা-লিকা মিন্ আম্বা – য়িল্ কুরা- নাকুছ্ছুহূ ‘আলাইকা মিন্হা- ক্বা – য়িমুঁও অহাছীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০০ এ হচ্ছে জনপদসমূহের কিছু সংবাদ, যা আমি তোমার কাছে বর্ণনা করছি। তা থেকে কিছু আছে বিদ্যমান এবং কিছু হয়েছে বিলুপ্ত।

وَمَا ظَلَمْنَاهُمْ وَلَكِنْ ظَلَمُوا أَنْفُسَهُمْ فَمَا أَغْنَتْ عَنْهُمْ آلِهَتُهُمُ الَّتِي يَدْعُونَ مِنْ دُونِ اللَّهِ مِنْ شَيْءٍ لَمَّا جَاءَ أَمْرُ رَبِّكَ وَمَا زَادُوهُمْ غَيْرَ تَتْبِيبٍ11.101

আরবি উচ্চারণ
১১.১০১। অমা-জলাম্না-হুম্ অলা-কিন্ জলামূ য় আন্ফুসাহুম্ ফামা য় আগ্নাত্ ‘আন্হুম্ আ-লিহাতুহুমুল্লাতী ইয়াদ্‘ঊনা মিন্ দূনিল্লা-হি মিন্ শাইয়িল্ লাম্মা- জ্বা – য়া আম্রু রব্বিক্; অমা-যা-দূহুম্ গইরা তাত্বীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০১ আর আমি তাদের উপর যুলম করিনি, বরং তারা নিজদের উপর যুলম করেছে। তারপর যখন তোমার রবের নির্দেশ আসল তখন আল্লাহ ছাড়া যে সব উপাস্যকে তারা ডাকত, তারা তাদের কোন উপকার করেনি এবং তারা ধ্বংস ছাড়া তাদের আর কিছুই বৃদ্ধি করেনি।

وَكَذَلِكَ أَخْذُ رَبِّكَ إِذَا أَخَذَ الْقُرَى وَهِيَ ظَالِمَةٌ إِنَّ أَخْذَهُ أَلِيمٌ شَدِيدٌ11.102

আরবি উচ্চারণ
১১.১০২। অ কাযা-লিকা আখ্যু রব্বিকা ইযা য় আখযাল্ কুরা-অহিয়া জোয়া-লিমাহ্; ইন্না আখ্যাহূ য় আলীমুন্ শাদীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০২ আর এরূপই হয় তোমার রবের পাকড়াও যখন তিনি পাকড়াও করেন অত্যাচারী জনপদসমূহকে। নিঃসন্দেহে তাঁর পাকড়াও বড়ই যন্ত্রণাদায়ক, কঠোর।

إِنَّ فِي ذَلِكَ لَآيَةً لِمَنْ خَافَ عَذَابَ الْآخِرَةِ ذَلِكَ يَوْمٌ مَجْمُوعٌ لَهُ النَّاسُ وَذَلِكَ يَوْمٌ مَشْهُودٌ11.103

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৩। ইন্না ফী যা-লিকা লাআ-ইয়া তাল্লিমান্ খা-ফা ‘আযা-বাল্ আ-খিরাহ্; যা-লিকা ইয়াওমুম্ মাজ্বুমূঊ’ল্ লাহুন্না-সু অ যা-লিকা ইয়াওমুম্ মাশ্হূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৩ নিশ্চয় এতে রয়েছে নিদর্শন তার জন্য যে আখিরাতের আযাবকে ভয় করে। সেটি এমন একটি দিন, যেদিন সকল মানুষকে সমবেত করা হবে এবং সেটি এমন এক দিন, যেদিন সবাই হাযির হবে।

وَمَا نُؤَخِّرُهُ إِلَّا لِأَجَلٍ مَعْدُودٍ11.104

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৪। অমা-নুওয়াখ্খিরুহূ য় ইল্লা-লিআজ্বালিম্ মা’দূদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৪ আর নির্দিষ্ট কিছুকালের জন্যই আমি তা বিলম্বিত করছি।

يَوْمَ يَأْتِ لَا تَكَلَّمُ نَفْسٌ إِلَّا بِإِذْنِهِ فَمِنْهُمْ شَقِيٌّ وَسَعِيدٌ11.105

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৫। ইয়াওমা ইয়াতি লা-তাকাল্লামু নাফ্সুন্ ইল্লা-বিইয্নিহী ফামিন্হুম্ শাক্বিইয়ুওঁ অসাঈ’দ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৫ যেদিন তা আসবে সেদিন তাঁর অনুমতি ছাড়া কেউ কথা বলবে না। অতঃপর তাদের মধ্য থেকে কেউ দুর্ভাগা, আর কেউ সৌভাগ্যবান।

فَأَمَّا الَّذِينَ شَقُوا فَفِي النَّارِ لَهُمْ فِيهَا زَفِيرٌ وَشَهِيقٌ11.106

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৬। ফাআম্মাল্লাযীনা শাকুফাফিন্না-রি লাহুম্ ফীহা- যাফীরুঁও অ শাহীক্ব।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৬ অতঃপর যারা হয়েছে দুর্ভাগা, তারা থাকবে আগুনে। সেখানে থাকবে তাদের চীৎকার ও আর্তনাদ।

خَالِدِينَ فِيهَا مَا دَامَتِ السَّمَاوَاتُ وَالْأَرْضُ إِلَّا مَا شَاءَ رَبُّكَ إِنَّ رَبَّكَ فَعَّالٌ لِمَا يُرِيدُ 11.107

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৭। খলিদীনা ফীহা- মা-দা-মাতিস্ সামাঅতু অল্ র্আদু ইল্লা- মা-শা – য়া রব্বুক্; ইন্না রব্বাকা ফা‘আ-লুল্লিমা-ইয়ুরীদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৭ সেখানে তারা স্থায়ী হবে, যতদিন পর্যন্ত আসমানসমূহ ও যমীন থাকবে , অবশ্য তোমার রব যা চান । নিশ্চয় তোমার রব তা-ই করে যা তিনি ইচ্ছা করেন।

وَأَمَّا الَّذِينَ سُعِدُوا فَفِي الْجَنَّةِ خَالِدِينَ فِيهَا مَا دَامَتِ السَّمَاوَاتُ وَالْأَرْضُ إِلَّا مَا شَاءَ رَبُّكَ عَطَاءً غَيْرَ مَجْذُوذٍ11.108

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৮। অ আম্মাল্লাযীনা সুই’দূ ফাফীল্ জ্বান্নাতি খ-লিদীনা ফীহা- মা-দা-মাতিস্ সামাঅতু অল্ র্আদু ইল্লা-মা-শা – য়া রব্বুক্; ‘আত্বোয়া – য়ান্ গাইরা মাজ্বুযূয্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৮ আর যারা ভাগ্যবান হয়েছে, তারা জান্নাতে থাকবে, সেখানে তারা স্থায়ী হবে যতদিন পর্যন্ত আসমানসমূহ ও যমীন থাকবে, অবশ্য তোমার রব যা চান, অব্যাহত প্রতিদানস্বরূপ।

فَلَا تَكُ فِي مِرْيَةٍ مِمَّا يَعْبُدُ هَؤُلَاءِ مَا يَعْبُدُونَ إِلَّا كَمَا يَعْبُدُ آبَاؤُهُمْ مِنْ قَبْلُ وَإِنَّا لَمُوَفُّوهُمْ نَصِيبَهُمْ غَيْرَ مَنْقُوصٍ11.109

আরবি উচ্চারণ
১১.১০৯। ফালা-তাকু ফী র্মিইয়াতিম্ মিম্মা-ইয়া’বুদু হা য় য়ুলা – য়্; মা- ইয়া’বুদূনা ইল্লা-কামা- ইয়া’বুদূ আ-বা – য়ু হুম্ মিন্ ক্বাব্ল্; অ ইন্না- লামুঅফ্ফূহুম্ নাছীবাহুম্ গইর মান্ক্ব ূছ্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১০৯ সুতরাং এরা যাদের উপাসনা করে, তুমি তাদের ব্যাপারে সংশয়ে থেকো না। তারা তো উপাসনা করে, যেমন ইতঃপূর্বে উপাসনা করত তাদের পিতৃপুরুষগণ। নিশ্চয় আমি তাদের অংশ হ্রাস না করে তাদেরকে পুরোপুরি দেব।

وَلَقَدْ آتَيْنَا مُوسَى الْكِتَابَ فَاخْتُلِفَ فِيهِ وَلَوْلَا كَلِمَةٌ سَبَقَتْ مِنْ رَبِّكَ لَقُضِيَ بَيْنَهُمْ وَإِنَّهُمْ لَفِي شَكٍّ مِنْهُ مُرِيبٍ11.110

আরবি উচ্চারণ
১১.১১০। অলাক্বদ্ আ-তাইনা- মূসাল্ কিতা-বা ফাখ্তুলিফা ফীহ্; অলাওলা- কালিমাতুন্ সাবাক্বত্ র্মি রব্বিকা লাকুদ্বিয়া বাইনাহুম্; অইন্নাহুম্ লাফী শাক্কিম্ মিন্হু মুরীব্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১০ আর আমি নিশ্চয় মূসাকে কিতাব দিয়েছিলাম, অতঃপর তাতে মতবিরোধ করা হয়েছিল। যদি তোমার রবের পক্ষ থেকে পূর্ব সিদ্ধান্ত না থাকত , তবে তাদের মধ্যে মীমাংসা হয়ে যেত। আর নিশ্চয় তারা এ ব্যাপারে ঘোর সন্দেহে রয়েছে।

وَإِنَّ كُلًّا لَمَّا لَيُوَفِّيَنَّهُمْ رَبُّكَ أَعْمَالَهُمْ إِنَّهُ بِمَا يَعْمَلُونَ خَبِيرٌ11.111

আরবি উচ্চারণ
১১.১১১। অইন্না কুল্লাল্লাম্মা- লাইয়ুঅ ফ্ফিয়ান্নাহুম্ রব্বুকা আ’মা-লাহুম্; ইন্নাহূ বিমা-ইয়া’মালূনা খর্বী।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১১ আর নিশ্চয় তোমার রব সবাইকে তাদের আমলের প্রতিদান পুরোপুরি দান করবেন। তারা যা করে, অবশ্যই তিনি সে ব্যাপারে সবিশেষ অবহিত।

فَاسْتَقِمْ كَمَا أُمِرْتَ وَمَنْ تَابَ مَعَكَ وَلَا تَطْغَوْا إِنَّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ بَصِيرٌ11.112

আরবি উচ্চারণ
১১.১১২। ফাস্তাক্বিম্ কামা য় উর্মিতা অমান্ তা-বা মা‘আকা অলা-তাত্বুগও; ইন্নাহূ বিমা-তা’মালূনা বার্ছী।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১২ সুতরাং যেভাবে তুমি নির্দেশিত হয়েছ সেভাবে তুমি ও তোমার সাথী যারা তাওবা করেছে, সকলে অবিচল থাক। আর সীমালঙ্ঘন করো না। তোমরা যা করছ নিশ্চয় তিনি তার সম্যক দ্রষ্টা।

وَلَا تَرْكَنُوا إِلَى الَّذِينَ ظَلَمُوا فَتَمَسَّكُمُ النَّارُ وَمَا لَكُمْ مِنْ دُونِ اللَّهِ مِنْ أَوْلِيَاءَ ثُمَّ لَا تُنْصَرُونَ11.113

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৩। অলা-র্তাকানূ য় ইলা ল্লাযীনা জোয়ালামূ ফাতামাস্সাকুমুন্না-রু অমা-লাকুম্ মিন্ দূনিল্লা-হি মিন্ আউলিয়া – য়া ছুম্মা লা- তুন্ছোয়ারূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৩ আর যারা যুলম করেছে তোমরা তাদের প্রতি ঝুঁকে পড়ো না; অন্যথায় আগুন তোমাদেরকে স্পর্শ করবে এবং আল্লাহ ছাড়া তোমাদের কোন অভিভাবক থাকবে না। অতঃপর তোমরা সাহায্যপ্রাপ্ত হবে না।

وَأَقِمِ الصَّلَاةَ طَرَفَيِ النَّهَارِ وَزُلَفًا مِنَ اللَّيْلِ إِنَّ الْحَسَنَاتِ يُذْهِبْنَ السَّيِّئَاتِ ذَلِكَ ذِكْرَى لِلذَّاكِرِينَ11.114

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৪। অআক্বিমিছ্ ছলা-তা ত্বোয়ারাফায়িন্নাহা-রি অযুলাফাম্ মিনাল্ লাইল্; ইন্নাল্ হাসানা-তি ইয়ুয্হিব্নাস্ সাইয়িয়া-ত্; যা-লিকা যিক্র-লিয্যা-কিরীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৪ আর তুমি সালাত কায়েম কর দিবসের দু’প্রান্তে এবং রাতের প্রথম অংশে । নিশ্চয়ই ভালকাজ মন্দকাজকে মিটিয়ে দেয়। এটি উপদেশ গ্রহণকারীদের জন্য উপদেশ।

وَاصْبِرْ فَإِنَّ اللَّهَ لَا يُضِيعُ أَجْرَ الْمُحْسِنِينَ 11.115

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৫। অর্ছ্বি ফাইন্নাল্লা-হা লা-ইয়ুদ্বী‘উআজ্বুরাল্ মুহ্সিনীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৫ তুমি সবর কর, নিশ্চয়ই আল্লাহ তাআলা ইহসানকারীদের প্রতিদান নষ্ট করেন না।

فَلَوْلَا كَانَ مِنَ الْقُرُونِ مِنْ قَبْلِكُمْ أُولُو بَقِيَّةٍ يَنْهَوْنَ عَنِ الْفَسَادِ فِي الْأَرْضِ إِلَّا قَلِيلًا مِمَّنْ أَنْجَيْنَا مِنْهُمْ وَاتَّبَعَ الَّذِينَ ظَلَمُوا مَا أُتْرِفُوا فِيهِ وَكَانُوا مُجْرِمِينَ11.116

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৬। ফালাওলা কা-না মিনাল্ কুরূনি মিন্ ক্বব্লিকুম্ ঊলূবাক্বিয়াতিঁ ইয়ান্হাওনা ‘আনিল্ ফাসা-দি ফীল্ র্আদ্বি ইল্লা-ক্বালীলাম্ মিম্মান্ আন্জ্বাইনা-মিনহুম্ অত্তাবা‘আ ল্লাযীনা জোয়ালামূ মা য় উত্রিফূ ফীহি অ কা-নূ মুজ্বু্রিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৬ অতএব তোমাদের পূর্বের প্রজন্মসমূহের মধ্যে এমন প্রজ্ঞাবান কেন হয়নি, যারা যমীনে ফাসাদ করা থেকে নিষেধ করত? অল্প সংখ্যক ছাড়া, যাদেরকে আমি তাদের মধ্য থেকে নাজাত দিয়েছিলাম। আর যারা যুলম করেছে, তারা বিলাসিতার পেছনে পড়ে ছিল এবং তারা ছিল অপরাধী।

وَمَا كَانَ رَبُّكَ لِيُهْلِكَ الْقُرَى بِظُلْمٍ وَأَهْلُهَا مُصْلِحُونَ11.117

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৭। অমা-কা-না রব্বুকা লিইয়ুহ্লিকাল্ কুরা বিজুল্মিঁও অআহ্লুহা-মুছ্লিহূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৭ আর তোমার রব এমন নন যে, তিনি অন্যায়ভাবে জনপদসমূহ ধ্বংস করে দেবেন, অথচ তার অধিবাসীরা সংশোধনকারী।

وَلَوْ شَاءَ رَبُّكَ لَجَعَلَ النَّاسَ أُمَّةً وَاحِدَةً وَلَا يَزَالُونَ مُخْتَلِفِينَ11.118

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৮। অলাও শা – য়া রব্বুকা লাজ্বা‘আলান্না-সা উম্মাতাঁও ওয়া-হিদাতাঁও অলা-ইয়াযা-লূনা মুখ্তালিফীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৮ যদি তোমার রব চাইতেন, তবে সকল মানুষকে এক উম্মতে পরিণত করতেন, কিন্তু তারা পরস্পর মতবিরোধকারী রয়ে গেছে,

إِلَّا مَنْ رَحِمَ رَبُّكَ وَلِذَلِكَ خَلَقَهُمْ وَتَمَّتْ كَلِمَةُ رَبِّكَ لَأَمْلَأَنَّ جَهَنَّمَ مِنَ الْجِنَّةِ وَالنَّاسِ أَجْمَعِينَ 11.119

আরবি উচ্চারণ
১১.১১৯। ইল্লা-র্মা রহিমা রব্বুক্; অলিযা-লিকা খলাক্বহুম্; অ তাম্মাত্ কালিমাতু রব্বিকা লাআম্লায়ান্না জ্বাহান্নামা মিনাল্ জ্বিন্নাতি অন্না-সি আজ্ব্মা‘ঈন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১১৯ তবে যাদেরকে তোমার রব দয়া করেছেন, তারা ছাড়া। আর এজন্যই তিনি তাদেরকে সৃষ্টি করেছেন এবং তোমার রবের কথা চূড়ান্ত হয়েছে যে, ‘নিশ্চয়ই আমি জাহান্নাম ভরে দেব জিন ও মানুষ দ্বারা একত্রে’।

وَكُلًّا نَقُصُّ عَلَيْكَ مِنْ أَنْبَاءِ الرُّسُلِ مَا نُثَبِّتُ بِهِ فُؤَادَكَ وَجَاءَكَ فِي هَذِهِ الْحَقُّ وَمَوْعِظَةٌ وَذِكْرَى لِلْمُؤْمِنِينَ11.120

আরবি উচ্চারণ
১১.১২০। অকুল্লান্ নাকুছ্ছু ‘আলাইকা মিন্ আম্বা-র্য়ি রুসুলি মা-নুছাব্বিতু বিহী ফুয়াদাকা, অজ্বা – য়াকা ফী হা- যিহিল্ হাক্বকুঅমাও ‘ইজোয়াতুঁও অযিক্রা- লিল্মুমিনীন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১২০ আর রাসূলদের এসকল সংবাদ আমি তোমার কাছে বর্ণনা করছি যার দ্বারা আমি তোমার মনকে স্থির করি আর এতে তোমার কাছে এসেছে সত্য এবং মুমিনদের জন্য উপদেশ ও স্মরণ।

وَقُلْ لِلَّذِينَ لَا يُؤْمِنُونَ اعْمَلُوا عَلَى مَكَانَتِكُمْ إِنَّا عَامِلُونَ11.121

আরবি উচ্চারণ
১১.১২১। অকুল্ লিল্লাযীনা লা-ইয়ুমিনূনা’ মালূ ‘আলা- মাকা-নাতিকুম্; ইন্না- ‘আমিলূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১২১ আর যারা ঈমান আনছে না তাদেরকে বল, ‘তোমরা স্ব স্ব অবস্থানে কাজ কর আমরাও কাজ করছি।

وَانْتَظِرُوا إِنَّا مُنْتَظِرُونَ11.122

আরবি উচ্চারণ
১১.১২২। অন্তাজিরূ ইন্না মুন্তাজিরূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১২২ এবং তোমরা অপেক্ষা কর আমরাও অপেক্ষমান’।

وَلِلَّهِ غَيْبُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ وَإِلَيْهِ يُرْجَعُ الْأَمْرُ كُلُّهُ فَاعْبُدْهُ وَتَوَكَّلْ عَلَيْهِ وَمَا رَبُّكَ بِغَافِلٍ عَمَّا تَعْمَلُونَ 11.123

আরবি উচ্চারণ
১১.১২৩। অলিল্লা-হি গইবুস্ সামা-ওয়া-তি অল্ র্আদ্বি অ ইলাইহি ইর্য়ুজ্বা‘উল্ আম্রু কুল্লহূ ফা’বুদ্হু অতাঅক্কাল্ ‘আলাইহি অমা-রব্বুকা বিগ-ফিলিন্ ‘আম্মা-তা’মালূন্।

বাংলা অনুবাদ
১১.১২৩ আসমানসমূহ ও যমীনের গায়েব আল্লাহরই এবং তাঁরই কাছে সব বিষয় প্রত্যাবর্তিত হবে। সুতরাং তুমি তাঁর ইবাদাত কর এবং তাঁর উপর তাওয়াক্কুল কর। আর তোমরা যা কিছু কর সে ব্যাপারে তোমার রব গাফেল নন।

সংকলন, অনুবাদ ও সম্পাদনা : মাওলানা মিরাজ রহমান

কৃতঙ্গতায় – প্রিয়.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.